বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন ঠেকাতে রাজপথে সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত: ৩:৫৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঐতিহ্যবাহী সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন করে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্ত সরকারি বরিশাল কলেজ নামকরণের উদ্যোগ নিয়েছেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিরা। তবে এ উদ্যোগের ঘোর বিরোধিতা শুরু করেছেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের বৃহৎ একটি অংশ। তারা নাম পরিবর্তনের উদ্যোগ বাতিলের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন। গতকাল শনিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে নগরীর সদর রোডস্থ অশ্বিনী কুমার হলের সামনে এই প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। এতে একাত্মতা প্রকাশ করে অংশগ্রহণ করেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ সর্বস্তরের মানুষ।

ছাত্রলীগ নেতা আসলাম তালুকদার অনিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সরকারি বরিশাল কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট এ.কে.এম জাহাঙ্গীর হোসেন।

তিনি বলেন, ‘নাম পরিবর্তন নয়, অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে কোন ভবন, হোস্টেল বা জাদুঘর হতে পারে। কিন্তু তা না করে বরিশাল জেলা প্রশাসক কার স্বার্থে সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন করে মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্তের নামে নামকরণ করার প্রস্তাব দিয়েছেন সেটা তিনিই ভালো বলতে পারেন। সরকারি বরিশাল কলেজ নামের সাথে বরিশালের নামের স্মৃতি জড়িয়ে আছে। যতই প্রভাব দেখানো হোক না কেন এখানকার সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা কোনভাবেই সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তন করতে দিবেন না।

এসময় হুঁশিয়ারি দিয়ে আওয়ামী লীগের শীর্ষ স্থানীয় এই নেতা বলেন, ‘নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত যদি না পাল্টানো হয় তবে ছাত্র সমাজের মাঝে ক্ষোভের বিস্ফোরণ ঘটবে। আর জেলা প্রশাসক তা সামাল দিতে পারবেন না। তাই অবিলম্বে নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত বাতিলের জোর দাবি জানান তিনি।
সমাবেশে নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্তের তুমুল বিরোধিতা করে সরকারি বরিশাল কলেজের সাবেক এজিএস ও বরিশাল জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাফিজ আহমেদ বাবলু বলেন, ‘সরকারি বরিশাল কলেজ প্রতিষ্ঠাকালে অশ্বিনী কুমার দত্তের কোন অবদান নেই। তারা তাদের সম্পত্তি বিক্রি করে গেছেন। এই কলেজের জমি ক্রয় করার পেছনে যারা সর্বাত্মক সহযোগিতা করেছেন তাদের মধ্যে শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, আব্দুর রহমান বিশ্বাস, গোলাম মাওলাসহ বিভিন্ন গুণীজন রয়েছেন। তাদের দেওয়া অর্থ এবং কলেজের নিজস্ব অর্থায়নে একটি নাইট কলেজ হিসেবে এটি গড়ে উঠেছিল। তাই কারোর নামে এই কলেজের নামকরণ হতে পারে না।

প্রতিবাদ সমাবেশে এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য এবং উপস্থিত ছিলেন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও কলামিস্ট আলম রায়হান, সিটি কর্পোরেশনের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সাইদ আহমেদ মান্না, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হেমায়েত উদ্দিন সুমন সেরনিয়াবাত, সহ-সভাপতি সাজ্জাদ সেরনিয়াবাত, সরকারি বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল করিম রেজাসহ বরিশাল কলেজের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।
প্রসঙ্গত, ‘স্থানীয় সংস্কৃতিজনদের দাবির প্রেক্ষিতে গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে সরকারি বরিশাল কলেজের নাম পরিবর্তনের জন্য উপর মহলে চিঠি চালাচালি শুরু করে জেলা প্রশাসন।

সবশেষ গত ২৯ জুন শিক্ষা মন্ত্রণালয় কলেজটির বর্তমান নাম পরিবর্তন করে ‘মহাত্মা অশ্বিনী কুমার দত্ত সরকারি কলেজ’ নামে নামকরণের সুপারিশসহ মতামত চায় বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের কাছে। এ নিয়ে আজকের বার্তায় প্রধান শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর পর পরই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা নাম পরিবর্তনে নেওয়া সিদ্ধান্তের প্রকাশ্য বিরোধিতা শুরু করেন। তার অংশ হিসেবে শনিবার মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে এবং আজ রোববার একই দাবিতে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করবেন সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা।