বরিশালে হবে না তাজিয়া মিছিল : বৃদ্ধি পাবে নিরাপত্তা বলয়

প্রকাশিত: ১১:২৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৮, ২০২০

শফিক মুন্সি ॥

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে এবছর বরিশাল নগরীতে আশুরার দিনে কারবালা স্মরণে শিয়া মুসলিমদের ঐতিহ্যবাহী শোকের মিছিল বা তাজিয়া হচ্ছে না। তবে যেকোন উগ্রবাদী কিম্বা সন্ত্রাসী পরিস্থিতি মোকাবেলায় আসন্ন ৩০ আগস্ট অনুষ্ঠিতব্য আশুরার দিনে বরিশাল জেলা ও মহানগরী জুড়ে বৃদ্ধি পাবে নিরাপত্তা বলয়। শুক্রবার জেলা ও মহানগর পুলিশ সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ (বিএমপি) কমিশনার শাহাবুদ্দিন খান বলেছেন, খোলা স্থানে তাজিয়া মিছিল ও সমাবেশ না করার বিষয়ে সকলকে উদ্যোগ নিতে হবে। তবে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে ঘরোয়াভাবে ধর্মীয় অন্যান্য অনুষ্ঠান পালন করা যাবে বলে জানিয়েছেন তিনি। সেদিন নগরীর সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমান যেন নির্বিঘ্নে ধর্মীয় রীতিনীতি পালন করতে পারেন সেজন্য অতিরিক্ত পুলিশী টহল, তল্লাশী চৌকি বৃদ্ধি ,সাদা পোশাকে পুলিশী নজরদারি বৃদ্ধি করা হবে বলে জানান তিনি।

বরিশাল জেলা পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান, ইতোমধ্যে জেলার শিয়া সম্প্রদায়ের নেতাদের কাছে এবার আশুরা পালনের বিশেষ নির্দেশনা প্রেরু করা হয়েছে। এছাড়া সবাইকে ঘরোয়া আয়োজনের মাধ্যমে ধর্মীয় সকল অনুশাসন পালনে উৎসাহিত করা হচ্ছে। বিশেষ দিনটিতে যেকোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে জেলা জুড়ে অতিরিক্ত পুলিশী নিরাপত্তা নিশ্চিতের কথা জানান তিনি। তবে ঘরোয়া আয়োজনেও সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানার পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার পরামর্শ দেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

আগামী ৩০ আগস্ট বাংলাদেশে আশুরা পালিত হবে। হিজরি ৬১তম বর্ষের (৬৮০ খ্রিস্টাব্দ) ১০ মহররম ফোরাত নদীর তীরে কারবালা প্রান্তরে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স.)-এর দৌহিত্র হজরত ইমাম হোসেন (রা.) শহীদ হন। দিনটিকে ত্যাগ ও শোকের প্রতীক হিসেবে বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমান বিশেষ করে শিয়া মুসলমানরা ধর্মীয় অনুশাসনের মধ্য দিয়ে পালন করেন। দিনটিতে বরিশালের বিভিন্ন জায়গা থেকে বের করা হতো শোকের মিছিল। তবে মহামারির কারণে এ বছর সেই তাজিয়া হচ্ছে না।

সাধারণত আশুরা উপলক্ষে প্রতিবছর বরিশাল নগরীর নতুনবাজার এলাকায় সকালে তাজিয়া মিছিল বের হয়। পাকপাঞ্জাতন পরিষদের উদ্যোগে বের হওয়া তাজিয়া মিছিল নতুনবাজার এলাকা থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। জেলার অন্যান্য উপজেলাতেও অনিয়মিতভাবে তাজিয়া মিছিল আয়োজিত হয়। এছাড়া বিকালে নগরীর নাজিরেরপুল থেকে সুন্নি সম্প্রদায়ের উদ্যোগে তাজিয়া মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়াও সকালে ওই এলাকার রিফিউজি কলোনিতে (খালেদাবাদ কলোনি) লাঠিখেলা অনুষ্ঠিত হতো।

Sharing is caring!