‘বরিশালে নির্মাণ হবে চিড়িয়া খানা ও মহিষ গবেষণা কেন্দ্র’- শ.ম. রেজাউল করিম

প্রকাশিত: ৫:৫৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২১, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম বলেছেন, ‘বিশ্ব যখন করোনায় বিপর্যস্ত তখন আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিচালনায় এদেশ ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। আজ দেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রের দিকে নিয়ে যেতে তিনি নেতৃত্ব দিচ্ছেন। আমরা গ্রামের সাধারণ মানুষকে সুদমুক্ত ঋন দিয়ে বেকারত্ব দূর করার প্রকল্প গ্রহণ করেছি।

 

শনিবার (২১ নভেম্বর) বেলা ১২টার দিকে বরিশাল নগরীর কাশীপুর ‘সরকারি ছাগল উন্নয়ন খামার কার্যক্রমের উদ্বোধন এবং ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের শ্রেষ্ঠ খামারী ও পাঁঠা পালনকারীদের মাঝে উপকরণ এবং পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

 

ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের আয়োজনে ও জেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের সহযোগিতায় এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম- এমপি।

 

বরিশালের জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন- প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (গ্রেড-১) ডা. আব্দুল মালেক, বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকার ও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সাবেক এমপি এ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস।

 

প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনা বাংলাদেশে আল্লাহর নেয়ামত হিসেবে এসেছেন। তার সু-পরিকল্পিত চিন্তায় ধারার মাধ্যমে দেশে নেতৃত্ব দেয়ার কারণে এখানে কোন মানুষকে কষ্টের সম্মুখীন হতে হয় না।

সরকারের নানামুখী উন্নয়নের তথ্য তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘দক্ষিণাঞ্চলের প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দৃষ্টি রয়েছে বলেই এক সময় উন্নয়ন বঞ্চিত এই অঞ্চল পাল্টে গেছে। পদ্মা সেতু এবং পায়রা বন্দর প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে বরিশাল হবে অর্থনীতির রোল মডেল।

বরিশালবাসীকে প্রতিশ্রুতি দিয়ে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম বলেন, ‘বরিশালে একটি চিড়িয়া খানা নির্মাণ করা হবে। এর পাশাপাশি এখানে একটি মহিষ গবেষণা কেন্দ্র নির্মাণ করা হবে। তাছাড়া বরিশালেই হবে বড় খামার।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল উন্নয়ন প্রকল্প পরিচালক মো. শরিফুল হক, ডা. শেখ আজিজুর রহমান ও প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের বরিশাল বিভাগীয় উপ-পরিচালক ডা. কানাই লাল স্বর্ণকার। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. নুরুল আলম।

পরিশেষে বিভিন্ন খামারীদের মাঝে উপকরণ তুলে দেন মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম ও প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীমসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ। এর পূর্বে ফলক উন্মোচন ও দোয়া মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

 

এদিকে, অনুষ্ঠানের পূর্বে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম-এমপি। এসময় তিনি বলেন, ‘বরিশাল প্রাকৃতিক অপার সম্ভাবনার এলাকা। এখানে প্রাণি সম্পদের ভা-ার গড়ে তোলা হবে। সরকারি সহায়তায় এখানে গবেষণা কেন্দ্র করা হবে। যেখান থেকে এ অঞ্চলের বেকার ছেলে-মেয়েরা ডিপ্লোমা শেষ করার পূর্বেই চাকরিতে যোগদানের মাধ্যমে বেকারত্ব এবং দারিদ্র্যতা দূর করে স্বাবলম্বী হতে পারবে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী আরও বলেন, ‘এখানকার কোন উন্নয়নমূলক কাজে কেউ প্রতিকূলতা কিংবা বাধার সৃষ্টি করতে এলে তাদের কোন ভাবেই ছাড় দেয়া হবে না। আমরা গু-ামি, দুর্নীতি প্রতিরোধে জিরো টলারেন্স থাকবো। সরকারের উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Sharing is caring!