বরিশালে লোকজ খেলাধুলা বিষয়ে প্রশিক্ষণ


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ১১:০৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ৬, ২০২১
dav

খবর বিজ্ঞপ্তি ॥ লোকজ খেলাধুলা বিষয়ে বরিশাল বিভাগীয় কোচেস এবং জাজেস প্রশিক্ষণ দিয়েছে বাংলাদেশ কান্ট্রি গেমস্ অ্যাসোসিয়েশন। বরিশাল জেলা কমিটির আয়োজনে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত বিভাগীয় স্টেডিয়ামে শনিবার দিনব্যাপী এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। সংস্থার কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি নুরুল হাসান ফরিদী সকালে কর্মশালার উদ্বোধন করেন।উদ্বোধনকালে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে লোকজ খেলা প্রায় হারিয়ে গেছে। এরমধ্যে আমাদের সংগঠন ১১৭টি দেশীয় খেলা চিহ্ণিত করেছে। পর্যায়ক্রমে এসব খেলাকে জনপ্রিয় করতে কাজ করছে আমাদের সংস্থা।’ বরিশাল বিভাগের ১৮ জন কোচ এবং জাজকে হারিয়ে যেতে বসা বেশি প্রচলিত ১০টি খেলার প্রক্রিয়া ও আইন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় এদিন। প্রশিক্ষণ দেন সংস্থার কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক ফয়েজ আহমেদ এবং যুগ্ম সম্পাদক মো. মনির হোসেন।কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বরিশালের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মো. শহীদুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংস্থার বরিশাল জেলা কমিটির আহবায়ক ও চ্যানেল আইয়ের জেলা প্রতিনিধি শাহীনা আজমীন।এসময় প্রধান অতিথি মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, মোবাইল গেমসে আসক্ত বর্তমান প্রজন্মকে সুস্থ্য ও স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে দেশীয় খেলাধুলা চর্চার বিকল্প নেই। এই প্রশিক্ষণ থেকে কোচ ও জাজদের তৃণমূল পর্যায়ে বৌ-চি, কানামাছি, গোল্লাছুটসহ লোকজ খেলাগুলো ছড়িয়ে দেওয়ার দায়িত্ব নিতে অনুরোধ করেন।সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ আহমেদ বলেন, আমদানী করা খেলায় মশগুল হয়ে আমরা ভুলতে বসেছি আমাদের দেশীয় ক্রীড়া ঐতিহ্য। সেই ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা অত্যন্ত জরুরী। সভাপতি শাহীনা আজমীন প্রশিক্ষণার্থীদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, “আপনারা প্রশিক্ষণ নিলেন এবং আশাকরি আপনারা সামনে এসব খেলাধুলার বিভিন্ন ইভেন্ট আয়োজন করবেন। তখন প্রচারের জন্য অবশ্যই প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীদের দাওয়াত দেবেন।”প্রশিক্ষণ কোর্সে অংশ নিয়ে ভোলার প্রশিক্ষণার্থী আইয়ুম হোসেন বলেন, “দেশের বিভিন্ন স্থানে দেশীয় খেলাগুলোর বিভিন্ন নিয়ম প্রচলিত রয়েছে। তবে এই প্রশিক্ষনের মাধ্যমে সবাই একই প্লাটফর্মে আসবে বলে আমার মনে হয়।”এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী জেলার আহবায়ক ও চ্যানেল আইয়ের জেলা প্রতিনিধি এনায়েতুর রহমান, সাবেক আন্তর্জাতিক অ্যাথলেট মাকসুদা বেগমসহ অন্যরা।