বরিশালে ভালোবাসায় ঋতুরাজ বসন্ত বরণ

প্রকাশিত: ৯:৪১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মহামারি করোনার কারণে চিরাচরিত রীতি অনুযায়ী এবার পহেলা ফাল্গুনে বাসন্তী উৎসব হয়নি বরিশাল সরকারি মহিলা কলেজে। এমনকি আয়োজন হয়নি কোন মঞ্চানুষ্ঠানেরও।
তবে বরাবরের মতো এবারও বরিশাল জেলা প্রশাসন, শিল্পকলা একাডেমি এবং উদীচী ও বরিশাল নাটকের উদ্যোগে সার্কিট হাউজ এবং জগদীস সারস্বত বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বসন্ত উৎসবের আয়োজন করা হয়।

 

পহেলা ফাল্গুনে মনের রঙে রাঙিয়ে বাসন্তী উৎসবে সামিল হন তরুণ-তরুণীরা। তারা বাসন্তী রঙের পোশাক পরে বন্ধু-বান্ধবের সাথে স্মরণীয় করে রাখেন দিনটি। কিন্তু এবার করোনায় বিবর্ণ পহেলা বসন্ত। চিরাচরিত রীতি অনুযায়ী পহেলা বসন্তের প্রথম দিন এবার কোন আয়োজন নেই সরকারি মহিলা কলেজের বকুলতলার আলোকায়ন মঞ্চে।
অন্যান্য বছর নাচ, গান, আবৃত্তি এবং আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে পহেলা বসন্ত স্মরণীয় করে রাখেন সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীরা। অনেকে এক বছর পর ক্যাম্পাসে পা রেখে আনন্দে উদ্বেলিত হন। এবার মঞ্চানুষ্ঠান না হলেও কিছু শিক্ষার্থী সেজেগুজে ক্যাম্পাসে এসে আনন্দময় সময় কাটিয়েছেন। তারা সেলফি তুলে, বন্ধু বান্ধবের সাথে আড্ডা দিয়ে স্মরণীয় মুহূর্ত কাটিয়েছেন। করোনামুক্ত আগামীর বাংলাদেশ প্রত্যাশা করেন তারা।

 

সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আসাদুজ্জামান বলেন, প্রকৃতির কাছ থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। প্রকৃতি যখন নতুনভাবে সাজে, তখন মানুষের মনও রাঙায়। মানুষ প্রকৃতির মতো পবিত্র হয়। সৌন্দর্যে মানুষের মন আপ্লুত হয়। আপ্লুত হওয়া বাঙালীর ঐতিহ্য। আনুষ্ঠানিকতা না হলেও যে যার মতো করে বসন্ত ও ভ্যালেন্টাইন দিবস উপভোগ করছেন। এভাবে মন রাঙিয়ে দেশের জন্য কাজ করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

অপরদিকে, বিকেল ৫টায় সার্কিট হাউজ চত্বরে বসন্ত উৎসবের আয়োজন করেছে জেলা প্রশাসন ও শিল্পকলা একাডেমি। সেখানে নাচ, গান সহ নানা আয়োজন করা হয়েছে বসন্ত উৎসবের। এ উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকার।

 

জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দারের সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত নারী এমপি সৈয়দা রুবিনা আক্তার মিরা। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) মো. আব্দুর রাজ্জাক।

 

এছাড়াও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এস.এম ইকবাল, বীর প্রতীক কে.এস.এম মহিউদ্দিন মানিক, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক শাহ সাজেদা, জেলা কালচারাল অফিসার মো. হাসানুর রশীদ মাকসুদ, জেলা প্রশাসনের প্রবেসন অফিসার সাজ্জাদ পারভেজ, শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক পাপিয়া জেসমিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, বরাবরের মতো বিকেল ৪টায় নগরীর কালীবাড়ি রোডের জগদীশ সারস্বত মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বসন্ত উৎসবের আয়োজন করেছে সাংস্কৃতিক সংগঠন উদীচী এবং বরিশাল নাটক। নাচ, গান, আবৃত্তি এবং আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে আয়োজন করা হয়েছে বসন্ত উৎসবের। যদিও করোনার কারণে শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা এবং পিঠা উৎসবের আয়োজন করেনি কর্তৃপক্ষ।