বরিশালে বিপুল পরিমাণ চোরাই মালামালসহ গ্রেপ্তার ৮

প্রকাশিত: 3:15 PM, August 6, 2019

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের বিশেষ অভিযানে বিপুল পরিমাণ চোরাই মালামালসহ আট চোর গ্রেপ্তার হয়েছে। তাদের শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শহরের চাঁদমারিস্থ মেট্রোপলিটন পুলিশের অফিসার্স মেসের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য প্রকাশ করেন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান।এর আগে গত ৩ আগস্ট থেকে ৪ আগস্ট রাত পর্যন্ত অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মো. আকরামুল হাসানের নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালিত হয়।

গ্রেপ্তররা হচ্ছেন- বরিশাল শহরের নিউ ভাটিখানা এলাকার বাসিন্দা ও চোরচক্রের অন্যতম সদস্য আনোয়ার হোসেন (২৭), একই এলাকার বাসিন্দা মো. রিয়াদ (২৫), আমানতগঞ্জ এলাকার জিতু আহম্মেদ (৪০), পলাশপুর এলাকার তহিদুল ইসলাম (২৮), আজগর আলী সড়কের কবির গাজী (২৫), ভাটিখানা এলাকার রনি (১৯), কাটপট্টি এলাকার বাসিন্দা ও স্বর্ণ ব্যবসায়ী শ্যামল দে (৫৮) এবং বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই এলাকার আলিফ (২৪)।

পুলিশ কমিশনার জানান, সংঘবদ্ধ এই চোর চক্রটি গত কয়েক মাসে শহরের অন্তত ১০টির বেশি বাসা-বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত করে নগদ টাকা স্বর্ণালঙ্কারসহ মূল্যবান অনেক মালামাল নিয়ে যায়। এমনকি সর্বশেষ কাভার্ডভ্যান চাপায় নিহত ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়ার ভাড়া বাসায়ও হানা দিয়ে টাকাসহ স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়। পরে তাদের লাগাম টানতে সম্প্রতি পুলিশের একটি টিম বিশেষ অভিযানে নামে। শনিবার রাতে এই চক্রের মূলহোতা আনোয়ার ও রিয়াদকে গ্রেপ্তারে সফলতা আসে। পরবর্তীতে তাদের সাথে নিয়ে শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুইদিনে বাকি ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তাদের কাছ থেকে নগদ ১ লক্ষ ৪ হাজার টাকা, ১৫ টি মোবাইল সেট, ৪ টি ল্যাপটপ, ১ টি ট্যাব, ১ টি ডিএসএলআর ক্যামেরা, ১ টি হ্যান্ডি ক্যামেরা, ২ জোড়া স্বর্ণের বালা, ১ টি স্বর্ণের চেইন, ৫ টি ছোট স্বর্ণের আংটি, ৭ টি স্বর্ণের নাকফুল, ১ টি কম্পিউটার কি-বোর্ড, ১ টি কডলেস মাউথ স্পিকার, ৩ টি তালা ভাঙার সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।বরিশাল মেট্রোপলিটন কোতয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম  জানান, গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে একাধিক থানায় বেশ কয়েকটি চুরির মামলা রয়েছে। তবে এবারে তাদের বিরুদ্ধে নতুন একটি মামলা গ্রহণের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। সেই মামলাটিতেও তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হবে।’

Share Button