বরিশালে নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি : কীর্তনখোলায় বিপদসীমার ৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত

প্রকাশিত: ১:০২ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৫, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শ্রাবণের টানা বৃষ্টি এবং উজানের ঢলে বরিশালের বেশকয়েকটি নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রভাবিত হচ্ছে। আর এর ফলে তলিয়ে গেছে বরিশাল নগরীর নিম্নাঞ্চল। এছাড়া স্রোতের বেগ বেড়ে যাওয়ায় ভাঙনের শঙ্কা দেখা দিয়েছে নদী তীরবর্তী এলাকায়।

শুক্রবার বরিশালের পানি উন্নয়ন বোর্ড কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সর্বশেষ হিসেব অনুযায়ী বরিশালের কীর্তনখোলা নদীর পানি বিপদসীমার ৯ সেন্টিমিটার, হিজলার ধর্মগঞ্জে নদীর ২ সেন্টিমিটার, ভোলার দৌলতখানে সুরমা-মেঘনা নদীর পানি ৪৯ সেন্টিমিটার, ঝালকাঠির বিষখালী নদীর পানি ৭ সেন্টিমিটার, বেতাগীর বিষখালীর অংশে পানি ৫ ও বামনার বিষখালী অংশের পানি ২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়াও বাদবাকি বেশিরভাগ নদ-নদীর পানিই বিপদসীমার কাছাকাছি উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তারা।

বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের গেজ রিডার আবু রহমান জানান, দেশের পশ্চিমাঞ্চলে চলমান বন্যার পানি দক্ষিণাঞ্চলের নদ-নদী দিয়ে সাগরে নামছে। এছাড়া শ্রাবণের বৃষ্টিপাত এবং অমাবশ্যার প্রভাবে নদীতে পানির চাপ কিছুটা বেড়েছে।

এদিকে হিজলা, মুলাদীর বিভিন্ন নদীসহ বানারীপাড়া-উজিরপুরের সন্ধ্যা, মেহেন্দিগঞ্জের কালাবদর ও তেঁতুলিয়া এবং ঝালকাঠির রাজাপুরের বিষখালী নদী তীরবর্তী এলাকায় কিছুটা ভাঙন দেখা দিয়েছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

Sharing is caring!