বরিশালে বগুড়ার নামে ভেজাল দই: মোবাইল কোর্টে জরিমানা

প্রকাশিত: ১০:৫৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রতারণামূলকভাবে বিক্রি করা হচ্ছে কাপ ‘রাজকীয় দই’। এ দই বরিশালে স্থানীয় উপায়ে উৎপাদন হলেও বিক্রি করা হচ্ছে ‘বগুড়ার দই’ নামে। দীর্ঘ দিন ধরে এমন প্রতারণার মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে অবৈধ ‘রাজকীয় দই’ কোম্পানির লোকেরা।
এদিকে, ‘দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসা প্রতিষ্ঠানটির প্রতারণা ধরা পড়েছে বরিশাল জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্টের কাছে। এ কারণে ওই প্রতিষ্ঠানের মালিক জাকির হোসেনকে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার বিকালে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সহযোগিতায় নগরীর কাশীপুর এলাকায় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ দস্তোগীর এর মোবাইল কোর্ট ওই অর্থদণ্ড দিয়েছেন। পাশাপাশি তারা ধ্বংস করেছে বেশ কিছু পরিমাণ ভেজাল দই।
জানাগেছে, ‘কাশীপুর এলাকায় আনসার ক্যাম্পের পেছনে দীর্ঘ দিন ধরে ‘রাজকীয় দই’ নামে কাপে ভরে পাইকারী মূল্যে দই বিক্রি করে আসছিলেন জাকির হোসেন ও তার সহযোগীরা। তারা বরিশালের বিভিন্ন স্থান থেকে দই সংগ্রহ করে তা প্লাস্টিকের কাপে ভরে ওপরে বগুড়ার দই এর লেবেল লাগিয়ে বিভিন্ন দোকানে প্রতি পিস ৩০ টাকা মূল্যে বিক্রি করে আসছিলেন।

 

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিষয়টি জানতে পারে বরিশাল জেলা প্রশাসন ও সিটি কর্পোরেশন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বিকালে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ দস্তোগীর সিটি কর্পোরেশনের সহযোগিতা নিয়ে ওই কাপ দই উৎপাদন কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেন।

সেখানে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পান তিনি। পরে প্রতারণামূলক কর্মকা-ের অপরাধে ওই প্রতিষ্ঠানের মালিক জাকির হোসেনকে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে তা আদায় করেন। পাশাপাশি বেশ কিচু পরিমাণ কাপ দই ধ্বংস করেন তিনি।

এ মোবাইল কোর্টে প্রসিকিউশন করেন সিটি কর্পোরেশনের নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক (স্যানিটারি ইন্সপেক্টর) সৈয়দ এনামুল হক। তাছাড়া আইন-শৃঙ্খলা’র বিষয়ে সহযোগিতা করে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি টিম।