বরিশালে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে দু’জনকে গণপিটুনি

প্রকাশিত: ৬:৫০ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০১৯

বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় ‘ছেলেধরা ও কল্লাকাটা’ সন্দেহে দুই যুবককে পিটুনি দিয়েছেন স্থানীয় জনতা। বুধবার উপজেলার নলচিড়া ইউনিয়নের কাণ্ডপাশা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই দু’জনকে জনরোষ থেকে উদ্ধার করে।ঘটনার শিকার ওই দুই যুবকের নাম তরিকুল ইসলাম (২৯) ও মিজানুর রহমান (২৮)। তাদের বাড়ি মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলায়।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, টেকেরহাট চরপ্রসন্নদী জামেয়া আরাবিয়া মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসা ও এতিমখানার সাহায্যের জন্য টাকা তুলতে তরিকুল ও মিজানুর বুধবার কাণ্ডপাশা গ্রামে যান। এরপর কয়েকটি বাড়ি থেকে টাকা তোলেন। তবে এ সময় গ্রামের কাণ্ডপাশা নুরানী তালীমুল মাদ্রাসার সুপার মাহামুদুল ইসলাম

গ্রামের যুবকদের ডেকে অবহিত করেন, এলাকায় ছেলেধরা ও গলাকাটা প্রবেশ করেছে। এরপর যুবকেরা ওই দুজনকে খুঁজে বের করে পিটুনি দেয়।আহত তরিকুল ইসলাম ও মিজানুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, ‘স্থানীয়দের পরিচয়পত্র এবং চাঁদা সংগ্রহের জন্য মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের অনুমতিপত্রও দেখানো হয়েছিল। কিন্তু তারপরও কল্লাকাটা অপবাদ দিয়ে তাদের মারপিট করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম সরোয়ার বরিশালটাইমসকে বলেন, মারধরের শিকার দুই ব্যক্তিকে ওইদিন রাতে সংশ্লিষ্ট মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Sharing is caring!