বরিশালে ছাত্রদলের সভাপতি-সম্পাদকসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: ১:৪৯ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নগরীর কলেজ অ্যাভিনিউ এলাকায় ছাত্রদল কর্মী শাহাজাদা মোল্লাকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি, জেলার সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদকসহ ১৫ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
এর মধ্যে সাতজনকে আমধারী এবং ৭-৮ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মহানগরীর কোতয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নুরুল ইসলাম। মামলায় নামধারী আসামিরা হলেন- বরিশাল মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি রেজাউল করিম রনি, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক কামরুল আহসান, জেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক মো. মাহফুজ, ছাত্রদল নেতা ও নগরীর হাটখোলা এলাকার বাসিন্দা জসীম উদ্দিন তালুকদার, অক্সফোর্ড মিশন রোড এলাকার বাসিন্দা আল আমিন মৃধা, বরিশাল কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম টিপু ও ছাত্রদল নেতা মো. রাহাত আব্দুল্লাহ ফকির।

মামলার এজাহারে অভিযোগ করা হয়েছে, ‘আসামিদের সাথে ছাত্রদল কর্মী শাহাজাদা মোল্লার দীর্ঘ দিন ধরে রাজনৈতিক বিরোধ চলে আসছিল। যার সূত্র ধরে আসামিরা প্রায়ই শাহাজাদাকে খুন করার হুমকি দিয়ে আসছিল।
সর্বোশেষ গত ১৮ ফেব্রুঢারি দিবাগত রাত ৯টার দিকে শাহাজাদা মোল্লা নগরীর পোর্ট রোডে তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে কলেজ এ্যাভিনিউ এলাকার বাসভবনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। তিনি কলেজ এ্যাভিনিউ এলাকার বড় পুকুর পাড়ে মাসুমের চায়ের দোকানের সামনে পৌঁছালে আসামিরা তার পথরোধ করে। এক পর্যায় কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে জখম করে।

এজাহারে আরও বলা হয়েছে, ‘আসামিরা বাদীর মাথা লক্ষ্য করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করতে উদ্যত হলে তা হাত দিয়ে ঠেকাতে গিয়ে দুই হাতই জখম হয়। পরে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে আসামিরা লাঠি-সোটা দিয়ে বেধড়কভাবে পেটায়। পাশাপাশি ছাত্রদল কর্মী শাহাজাদা মোল্লার সাথে থাকা ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানের নগদ ৮০ হাজার টাকা ও ১ লাখ টাকা মূল্যের দুই ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার নিয়ে যায় বলে মামলার এজাহারে দাবি করা হয়েছে।
এসময় শাহাজাদা মোল্লার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে হামলাকারীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে মুমূর্ষ অবস্থায় শাহাজাদাকে উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।