ববি শিক্ষার্থীর ওপর হামলার ঘটনায় দুজন গ্রেফতার, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের স্বস্তি প্রকাশ

প্রকাশিত: ১০:০৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৭, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী আমির হামজা ও তাঁর পরিবারের ওপর হামলার ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার পুলিশ প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। আর হামলাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনায় স্বস্তি প্রকাশ করেছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তবে দ্রুত অন্য হামলাকারীদের গ্রেফতার এবং হামজা সহ পরিবারের সকলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি করেছেন প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষকবৃন্দ।

ুবৃহস্পতিবার সকালে যশোরের ঝিকরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রাজ্জাক জানান, আমির হামজা ও তাঁর পরিবারের ওপর হামলার ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। সেই আলোকে স্থানীয় পানিসারা ইউনিয়নের বাসিন্দা শাহাবুদ্দিন ওরফে বিশুর ছেলে রিমন (২৫) ও রফিকুল বেপারীর ছেলে বাপ্পিকে (১৯) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের যশোর জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। পরবর্তীতে আদালতের নির্দেশনায় গ্রেফতারকৃতদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

হামজা ও তাঁর পরিবারের ওপর হামলাকারীদের মধ্যে দুজনকে গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় আনার জন্য সেখানকার স্থানীয় প্রশাসনকে সাধুবাদ জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ড. মুহাম্মদ মুহসিন উদ্দীন। তিনি বলেন,‘ আমাদের শিক্ষার্থীর পরিবারের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িত দুজনকে দ্রুত গ্রেফতার করার জন্য সেখানকার স্থানীয় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সাথে সাথে অন্য দুর্বৃত্তদেরকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবি করছি’। এছাড়া প্রশাসন আমির হামজা এবং তাঁর পরিবারের সকলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন এই শিক্ষক।

অন্যদিকে হামজার ওপর হামলার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীর সোচ্চার হবার বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন প্রক্টর ড.সুব্রত কুমার দাশ। তিনি উল্লেখ করেন,‘ হামজার ওপর হামলার ঘটনার প্রথম থেকে উপাচার্য মহোদয়ের নির্দেশনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাঁর পাশে ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষার্থীরা বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ – উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছে এবং যে যার জায়গা থেকে হামজার পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে। সবার উদ্দেশ্যে আমি জানাতে চাই, দেশের যেকোনো প্রান্তে বিপদের সম্মুখীন হওয়া শিক্ষার্থীদের প্রতি বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সবসময়ই দায়িত্বশীল আচরণ করবে’।

উল্লেখ্য, বাড়ির পাশে মাদক বিক্রি বন্ধে সোচ্চার হওয়ায় গত ২৪ আগস্ট বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আমির হামজা ও তাঁর পরিবারের ওপর হামলা চালানো হয়। হামলায় গুরুতর আহত হয়ে যশোর সদর হাসপাতালে ভর্তি হন ওই শিক্ষার্থী, তাঁর পঞ্চাশোর্ধ্ব মা ও বাবা, ভাই এবং বোন। এই ঘটনার পরপরই প্রতিবাদে একাট্টা হন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক -শিক্ষার্থীরা।

Sharing is caring!