ফিটনেস টেস্টে পাস করলেন মুশফিক

প্রকাশিত: ১:৫৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২০

টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে যাননি পাকিস্তানে। মুশফিকুর রহীমকে ছাড়া ভালোভাবেই পাকিস্তান সফর করে এসেছে বাংলাদেশ দল। অনেকেই ভেবেছিলেন, হয়তোবা টেস্ট খেলার জন্য পাকিস্তান যেতে পারেন মুশফিক। কিন্তু তাকে বাদ দিয়েই টেস্ট দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তখনই জানা গিয়েছিল, হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি আক্রান্ত জাতীয় দলের নির্ভরযোগ্য এই ব্যাটসম্যান।

শুধু পাকিস্তান সফরে না যাওয়াই নয়, ইনজুরির কারণে ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির আসর বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) প্রথম রাউন্ডেও খেলতে পারেননি মুশফিক। গোড়ালির ইনজুরির কারণে খেলতে পারেননি ইমরুল কায়েসও। যে কারণে তাকেও রাখা যায়নি পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট দলে।

অবশেষে ইনজুরি থেকে ধীরে ধীরে সেরে উঠছেন বাংলাদেশের নির্ভরযোগ্য এই দুই ব্যাটসম্যান। আজ বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী মিডিয়াকে জানিয়েছেন, ফিটনেস টেস্টে পাস করেছেন মুশফিক। এমনকি ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া বিসিএলের দ্বিতীয় রাউন্ডেও খেলবেন তিনি।

দেবাশিষ চৌধুরী জানিয়েছেন, ইমরুল কায়েসও তার গোড়ালির ইনজুরি থেকে ধীরে ধীরে সেরে উঠছেন। ইমরুল এবং মুশফিক- দু’জনেরই ফিটনেস টেস্ট নেয়া হয় আজ (মঙ্গলবার)। এরপরই মিডিয়ার সামনে কথা বলেন তিনি।

দেবাশিষ চৌধুরী এ সময় বলেন, ‘মুশফিক ও ইমরুল- দু’জনই হ্যামস্ট্রিং এবং কাফ (গোড়ালি) ইনজুরির সঙ্গে লড়াই করছেন। তারা এখন ফেরার জন্য পূণর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাবে।’

মুশফিকের ইনজুরি নিয়ে তিনি বলেন, ‘মুশফিকের ইনজুরি হচ্ছে গ্রেড ওয়ান। এ কারণে আমরা আশা করতে পারি, ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে সে পুরোপুরি সেরে উঠবে। আমরা মনে করছি, ইমরুলের সম্ভবত আরও এক সপ্তাহ বেশি লাগতে পারে। আমাদের ফিজিও এবং ট্রেইনার কর্তৃক আয়োজিত ফিটনেস টেস্টে পাস করে গেছেন। তারা দু’জনই খেলার জন্য তৈরি।’

মুশফিকুর রহীমের সেরে ওঠা মানে হচ্ছে, ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে যে এক ম্যাচের টেস্ট সিরিজ রয়েছে, সেটাতে খেলতে পারবেন হয়তো তিনি। মুশফিক দলে ফিরলে অবশ্যই তার জন্য পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলা টেস্ট দল থেকে একজনকে বাদ দিতে হবে।

কে হবেন তিনি? কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো জানিয়ে দিয়েছেন, যে’ই মুশফিকের জায়গাটা দখল করবে, সে জায়গায় মুশফিককে ফিরতে হলে তাকে আরও বেশি পারফর্ম করে আসতে হবে।

Sharing is caring!