প্লাস্টিকের ওয়ান টাইম ব্যবহার নিষিদ্ধ করছে চীন

প্রকাশিত: ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০২০

বিভিন্ন প্লাস্টিক পণ্যের ওয়ান টাইম ব্যবহারের ক্ষেত্রে কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে চীন। চলতি বছরের শেষের দিকে দেশটির প্রধান প্রধান শহরে এবং ২০২২ সালের মধ্যে সারাদেশেই অপচনশীল প্লাস্টিক ব্যাগ নিষিদ্ধ করছে তারা। ২০২০ সালের মধ্যে রেস্তোরাঁ শিল্পেও একবার ব্যবহারযোগ্য স্ট্র নিষিদ্ধ করা হবে। সোমবার ব্রিটিশভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রায় ১৪০ কোটি জনসংখ্যার দেশ চীন বিশ্বের অন্যতম প্লাস্টিক বর্জ্য উৎপাদনকারী দেশ। এসব বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় গত কয়েক বছর ধরেই হিমশিম খাচ্ছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। নির্ধারিত সময়ের ২৫ বছর আগেই ভরে গেছে দেশটির সবচেয়ে বড় ময়লার ভাগাড়, যা ১০০টি ফুটবল মাঠের সমান। ২০১৭ সালেই ২১৫ মিলিয়ন টন গৃহস্থালি আবর্জনা সংগ্রহ করেছে চীন। কিন্তু সেগুলো পুনর্ব্যবহারের মতো অবস্থাও আর নেই তাদের।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ভিত্তিক অনলাইন প্রকাশনা ‘আওয়ার ওয়ার্ল্ড ইন ডাটা’র তথ্যমতে, ২০১০ সালে চীনে প্লাস্টিক বর্জ্য উৎপাদন হয়েছিল প্রায় ৬০ মিলিয়ন টন। আর যুক্তরাষ্ট্রে এধরনের বর্জ্য উৎপন্ন হয়েছিল ৩৮ মিলিয়ন টন।

২০১৮ সালে এ গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, ২০২৫ সাল পর্যন্ত বিশ্বের আপেক্ষিক চিত্র প্রায় একই থাকবে।

চীনের জাতীয় উন্নয়ন ও সংস্কার কমিশন গত রোববার নতুন নীতি চালু করেছে, যা আগামী পাঁচ বছর ধরে কার্যকর করা হবে। ২০২২ সালের মধ্যে দেশটির সব শহর-নগরে প্লাস্টিক ব্যাগ নিষিদ্ধ করা হবে। তবে এক্ষেত্রে কাঁচা পণ্য বিক্রি করা বাজারগুলো ২০২৫ সাল পর্যন্ত ছাড় পাবে।

০.০২৫ মিলিমিটারের কম মোটা প্লাস্টিক ব্যাগ উৎপাদনও বন্ধ করা হচ্ছে। রেস্তারাঁ শিল্পে সংশ্লিষ্টদের একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক পণ্য ব্যবহার কমাতে হবে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত। হোটেলগুলোকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে, ২০২৫ সালের পর তারা ক্রেতাদের আর ওয়ান টাইম পাস্টিক বিনামূল্যে দেয়ার প্রস্তাব দিতে পারবে না।

প্লাস্টিক পণ্য বর্জনের ব্যপারে চীনের উদ্যোগ এটাই প্রথম নয়। ২০০৮ সালে খুচরা বিক্রিতে বিনামূল্যে প্লাস্টিক ব্যাগ দেয়া নিষিদ্ধ করেছিল দেশটি। একই সঙ্গে অতিসূক্ষ্ম প্লাস্টিক ব্যাগ উৎপাদনও নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। ২০১৭ সালে বিদেশ থেকে প্লাস্টিক বর্জ্য আমদানি বন্ধের ঘোষণা দেয় সে সময়কার বিশ্বের সবচেয়ে বড় বর্জ্য আমদানিকারক দেশ চীন। অবশ্য এশিয়ার মধ্যে তারাই একমাত্র দেশ নয় যারা একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করছে।

চলতি বছরের শুরুতে থাইল্যান্ড জানিয়েছে, আপাতত বড় বড় দোকানগুলোতে প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হচ্ছে, ২০২১ সালের মধ্যে পুরো দেশেই এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায়ও ২০২০ সালের জুন মাসের মধ্যে মুদি দোকান, সুপারশপ, সাধারণ বাজারগুলোতে প্লাস্টিক ব্যাগ নিষিদ্ধ হচ্ছে। দেশটির বালি দ্বীপেও একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক নিষিদ্ধ। এছাড়া, অবৈধভাবে আমদানিক করা প্লাস্টিক বর্জ্যের প্রায় ১৫০টি কন্টেইনার যেসব দেশ থেকে এসেছে সেখানেই ফেরত পাঠিয়েছে মালয়েশিয়া।