প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর পেয়ে খুশি বরিশালের ১০০৯টি পরিবার

প্রকাশিত: ১০:৩৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার জমি এবং ঘর পেলো বরিশালের ভূমি ও গৃহহীন এক হাজার ৯টি পরিবার। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বরিশালের ১০ উপজেলায় এক হাজার ৯টি পরিবারকে ঘর হস্তান্তর কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
একই সময় তিনি দেশের মোট ৪৯২টি উপজেলায় ৬৬ হাজার ৯৮৯ ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে ঘর প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর এ উপহার পেয়ে হাসি ফুটেছে পরিবারগুলোতে।

এদিকে, ‘প্রধানমন্ত্রীর ঘর হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধনের পর পরই তার পক্ষ থেকে বরিশাল সদর উপজেলায় ভূমি ও গৃহহীনদের ঘর হস্তান্তর করেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম-এমপি। বরিশাল সদর উপজেলা পরিষদের হল রুমে অনুষ্ঠিত ঘর হস্তান্তর অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ, বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকার, বরিশালের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার, বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের দক্ষিণ বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মোকতার হোসেন, বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য তালুকদার মো. ইউনুস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) প্রশান্ত কুমার দাস, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মুনিবুর রহমান প্রমুখ। বরিশাল জেলা প্রশাসক কার্যালয় সূত্রে জানাগেছে, ‘বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় দেশের ভূমি ও গৃহহীনদের মাঝে জমি এবং ঘর হস্তান্তর করা হয়।

এর মধ্যে বরিশাল জেলার ১০টি উপজেলায় মোট এক হাজার ৫৫৬টি পরিবারকে জমি এবং নতুন নির্মিত ঘর হস্তান্তর করবে সরকার। এর মধ্যে শনিবার জেলার এক হাজার ৯টি পরিবারকে ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বাকী ৫৪৭টি ঘর উপকারভোগীদের নিকট হস্তান্তর করা হবে। দুই শতাংশ খাস জমির ওপর নির্মিত ২টি কক্ষ। যার মোট আয়তন ১৯৪ বর্গফুট। ঘরের পাশে সবজী চাষ এবং হাস-মুরগী পালনসহ আয় বর্ধক নানা সুযোগ সুবিধা রয়েছে। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ব্যয় নির্ধারণ হয়েছে এক লক্ষ ৭১ হাজার টাকা। সে হিসেবে জেলায় এক হাজার ৫৫৬টি ঘর নির্মাণে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ২৬ কোটি ৬০ লক্ষ ৭৬ হাজার টাকা।

জেলা প্রশাসন কার্যালয় থেকে আরও জানাগেছে, ‘বরিশাল সদর উপজেলায় ১৫৭টি, বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ১২০টি, মেহেন্দিগঞ্জে ২৫২টি, উজিরপুরে ৭০টি, বানারীপাড়ায় ২০০টি, গৌরনদীতে ২০০টি, মুলাদীতে ৩০০টি, বাবুগঞ্জে ১৭০টি, হিজলায় ৫১টি, আগৈলঝাড়ায় ৩৬টি ঘর হস্তান্তর করা হবে।