প্রতিবন্ধীর কোলে কন্যা সন্তান, বাবা কে জানা নেই

প্রকাশিত: ২:২৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২, ২০১৯

কুড়িগ্রামের উলিপুরে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী এক কিশোরী কন্যা সন্তানের মা হলে নবজাতকের পিতার পরিচয় নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। আজ বুধবার সকালে উলিপুর হাসপাতালে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী কন্যা সন্তানের জন্ম দিলে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

জানা গেছে, উপজেলার তবকপুর ইউনিয়নের সাদুল্যা চাচিয়ারপাড় গ্রামের এক দিনমজুরের বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী কিশোরী কন্যাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করার অভিযোগ ওঠে প্রতিবেশি মোনাল মিয়ার পুত্র হযরত আলীর (২১) বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে এলাকায় একাধিকবার সালিশ বৈঠকে সমাধানের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু অভিযুক্তের পরিবার বিয়েতে রাজি না হওয়ায় কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে গত ১৬ জুলাই থানায় মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্তের পিতা ও বড় ভাইকে আটক করে।

মামলা দায়েরের আড়াই মাস পর ওই কিশোরী আজ বুধবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একটি কন্যা সন্তান প্রসব করেন। তবে সদ্য ভূমিষ্ট সন্তানের পিতৃ পরিচয় নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।বুধবার দুপুরে স্থানীয় এনজিও এমজেএসকেএস এর প্রকল্প সমন্বয়কারী লুৎফর রহমান জন্ম নেওয়া কন্যা সন্তানের জন্য ২টি তোয়ালে, সাবান ও নতুন জামা-কাপড় উপহার দেন।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ডিএনএ পরীক্ষার পরেই পিতৃপরিচয় পাওয়া যাবে। মূল আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।উল্লেখ্য, গত ২৮ সেপ্টেম্বর ওই এলাকার কিশোর-কিশোরী দলের উদ্যোগে মানববন্ধন ও র‌্যালি করা হয়। ধর্ষিতা বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী কিশোরীটিকে সার্বিক সহযোগিতা করে আসছে এনজিও মহিদেব যুব সমাজ কল্যাণ সমিতির সিজিবিভি প্রকল্প।