পায়রা বন্দরসহ উপকূলজুড়ে জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত : পানিবন্দী হাজারো পরিবার

প্রকাশিত: ৪:৩৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০২০

মেজবাহউদ্দিন মাননু, কলাপাড়া প্রতিনিধি ::

তিন দিনের টানা বৃষ্টি আর মাঝারি ধরনের ঝড়ো হাওয়ায় কলাপাড়ায় পায়রা বন্দরসহ পর্যটন এলাকা কুয়াকাটার জীবনযাত্রা চরমভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। কৃষকের আমন ফসলের ক্ষেতে কোমর থেকে বুক সমান পানিতে ডুবে গেছে। বাড়িঘর থেকে মানুষ বেরিয়ে আসতে পারছে না। পানিবন্দী হয়ে পড়ছে হাজার হাজার পরিবার। মানুষের জীবনযাত্রা থমকে গেছে। ঘরের চুলো পর্যন্ত পানিতে ডুবে গেছে।

আড়াই শ’ স্লুইস-ইনলেট থাকলেও অনিয়ন্ত্রিত থাকার কারণে কৃষক জমানো পানি অপসারণ করতে পারছেন না। এক শ্রেণির প্রভাবশালী স্লুইসগুলো আটকে রাখছে। ধরছে মাছ। উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এই মুহূর্তে আমনের ক্ষতির আশঙ্কা কম। কিন্তু দুই একদিনে পানি অপসারণ না হলে সবজি চাষীদের ক্ষেত নষ্টের আশঙ্কা রয়েছে। সকল স্লুইসগেটে পানি নামানোর জন্য উপজেলা প্রশাসন সতর্ক রয়েছে।

 

 

এছাড়াও কলাপাড়া ও কুয়াকাটা পৌরএলাকায় অপরিকল্পিতভাবে বাড়িঘর স্থাপনা করায় এবং পর্যাপ্ত ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সাধারণ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। আবার ড্রেন থাকলে পরিষ্কার না করায় পানি নামছে না বলে ভুক্তভোগী মানুষের অভিযোগ রয়েছে। শহরের খালের দুইপাড়ে স্থাপনা তোলায় এখন পানি চলাচলের পথ সংকুচিত হয়ে আসছে। ফলে ভোগান্তি আর এক দফা বেড়েছে। কুয়াকাটায় সাগর প্রচণ্ড উত্তাল রয়েছে।

এরই মধ্যে শত শত পর্যটক গোসলে মত্ত। ট্যুরিস্ট পুলিশ মাইকিং করে উত্তাল সাগরে গোসলে সতর্ক থাকার জন্য অনুরোধ করলেও তা উপেক্ষা করে পর্যটকরা মেতে উঠেছে সাগরস্নানের উৎসবে।

Sharing is caring!