পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি, নিহত ৪

প্রকাশিত: ১:০৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৩, ২০২০

কাশ্মিরের পাক-ভারত সীমান্তে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত চার জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ভারতের তিন জন এবং পাকিস্তানের এক জন। নিহতদের মধ্যে দুই বছরের এক শিশুও রয়েছে।

আজ সোমবার উভয় দেশের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আল-জাজিরা এ খবর দিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুই দেশের মধ্যে সম্পাদিত ২০০৩ সালে শান্তিচুক্তি লঙ্ঘন করে রোববার ব্যাপক গোলাগুলির সূত্রপাত হয়। তবে গোলাগুলি শুরুর ব্যাপারে এক দেশ আরেক দেশকে দায়ী করেছে।

ভারতীয় পুলিশ কর্মকর্তা শ্রি রাম আম্বাকার বলেন, পাকিস্তানি সেনারা ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের কুপওয়ারা জেলায় বেসামরিক লোকদের লক্ষ্য করে গুলি চালালে এক নারী ও এক শিশুসহ তিন বেসামরিক লোক নিহত হয়।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় কিছু লোক আহত হয়েছে। কর্তৃপক্ষ উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে।

অন্যদিকে, সোমবার পাকিস্তানি সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে দাবি করেছে, ভারতীয় সেনারা বিনা উস্কানিতে শান্তিচুক্তি লঙ্ঘন করে নিয়ন্ত্রণ রেখার বারোহ, দুধনিয়াল, রাখচিকরি ও চিরিকটে বেসামরিক নাগরিকদের টার্গেট করে ব্যাপক গোলাবর্ষণ করে।

বিবৃতিতে দাবি করা হয়, ভারতীয় সেনাদের ভারি অস্ত্রশস্ত্রের গুলি এবং মর্টার নিক্ষেপের কারণে মুহাম্মাদ হাসীব নামে দুই বছরের শিশু মারা গেছে। এ ছাড়া এক নারী ও এক বৃদ্ধসহ চার বেসামরিক নাগরিক গুরুতর আহত হয়েছে।

পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডন বলছে, শান্তিচুক্তি লঙ্ঘন করে পাকিস্তান সীমান্তে গুলি চালানোর ঘটনায় ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতীয় দূতকে তলব করেছে সরকার।

প্রসঙ্গত, কাশ্মিরের দুই অংশ দুই দেশ নিয়ন্ত্রণ করে। কিন্তু উভয় দেশই পুরো কাশ্মির নিজেদের বলে দাবি করে। এ নিয়ে ১৯৪৭ সালের পর থেকে দুই দেশের মধ্যে দুটি যুদ্ধও হয়েছে।