পদ্মা সেতু চালু হলে দক্ষিণাঞ্চলের ব্যাপক উন্নয়ন হবে-নৌ প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯:৫৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২১

মোঃ জিয়াউদ্দিন বাবু ॥ নৌ-প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বলেছেন, পদ্মা সেতু চালু হলে দক্ষিণাঞ্চলের ব্যাপক উন্নয়ন হবে। দেশে ৪০ বছরে যে উন্নতি হয়নি বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। ’৭৫ এর পর বাংলাদেশকে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করেছেন। গতকাল বরিশাল সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে বরিশাল বিভাগের নদী সমূহের নাব্যতা বৃদ্ধি, জলাবদ্ধতা হ্রাস, সেচ সুবিধাদি বৃদ্ধি করে নদী ব্যবস্থাপনায় সম্ভাব্যতা যাচাই শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

 

তিনি আরো বলেন, এ প্রকল্পের আওতায় সর্বমোট ৩১টি নৌপথ বিবেচনা করা হয়েছে যার দৈর্ঘ্য প্রায় ১,৪৭৫ কিমি। ৩১টি নৌপথের মধ্যে মাত্র ৪টি নৌপথে পর্যাপ্ত গভীরতা থাকায় ড্রেজিং কার্যক্রমের প্রয়োজন নেই। অবশিষ্ট নৌপথে প্রায় ৪৭০ কিমি দৈর্ঘ্যে খননের প্রস্তাবনা করা হয়েছে যার ক্যাপিটাল ড্রেজিং এর পরিমাণ প্রায় ৪২ মিলিয়ন ঘনমিটার। পরবর্তীতে নৌপথসমূহে নাব্যতা বজায় রাখার জন্য ৭ বছর সংরক্ষণ ড্রেজিং এর প্রস্তাব করা করা হয়। যার পরিমাণ হবে প্রায় ১৭০ মিলিয়ন ঘনমিটার। সভায় নৌপথে মাঠ পর্যায়ে জরিপ পরিচালনার মাধ্যমে মোট ২৪৪টি ঘাট চিহ্নিত করা হয়। ট্রাফিক সমীক্ষা, স্থানীয় জনগণের চাহিদা, ঘাটে প্রয়োজনীয় সুবিধাদির অভাব, নৌপথের সংযোগ, নদীর অবস্থা ও প্রস্থ প্রভৃতি বিবেচনাপূর্বক নতুন ঘাট এবং বিদ্যামান ঘাট উন্নয়নের জন্য গৃহীত পরিকল্পনায় তিনটি, নতুন লঞ্চঘাট নির্মাণ, ষাটটি লঞ্চঘাট, এগারোটি কার্গোঘাট, আটত্রিশটি খেয়াঘাট উন্নয়ন এবং তিনটি ঘাট পর্যটনের উন্নয়নের জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বরিশাল সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, আপনাদের সকলকে নিয়ে বরিশালের উন্নয়নের জন্য কাজ করতে চাই। প্রধানমন্ত্রীর বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নে চিন্তা ভাবনা রয়েছে। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলতে হবে। শেখ হাসিনার হাত ধরে উন্নয়ন করতে হবে।

 

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিভাগীয় কমিশনার অমিতাভ সরকার। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক, বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার, ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক জহুর আলী, বরিশালের পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) হাসান মাহমুদ, উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু, সুরভী লঞ্চের মালিক রিয়াজুল কবির, সাংবাদিক মুরাদ আহমেদ, সাইদ পান্থ, নজরুল বিশ্বাস, সুশান্ত ঘোষ, এনজিও কর্মী রফিকুল ইসলাম, কাজী এনায়েত হোসেন শিবলু, বিএম কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ইনামুল হাকিম প্রমুখ।

 

নৌ প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আমরা গর্বের সাথে বলতে পারি, নিজেদের অর্থায়নে প্রধানমন্ত্রী আপন চেষ্টায় আজ পদ্মা সেতু নির্মাণ করেছেন। পদ্মা সেতু দিয়ে দক্ষিণাঞ্চলে রেল চালু করা হবে। নদীর নাব্যতা দূর করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মূল উন্নয়নের সাথে বরিশালকে যুক্ত করতে চান। বাংলাদেশের লঞ্চঘাটগুলোর উন্নয়ন করা হবে। নদী ও খালকে আমাদের রক্ষা করতে হবে। দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলতে হবে।