ন্যান্সির করা মামলায় জামিন, পাল্টা আইনের দ্বারস্থ হবেন আসিফ

প্রকাশিত: ১১:২৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২১

বার্তা ডেস্ক :: দেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সির করা মামলায় জামিন পেয়েছেন আরেক জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর। রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে ময়মনসিংহ অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল আদালতের বিচারক আব্দুল হাই আসিফের জামিনের আদেশ দেন। একই সঙ্গে আগামী ৮ এপ্রিল তাকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আসামি পক্ষের আইনজীবি রেজাউল কবির আনার। এদিকে জামিন পাওয়ার পর এবার পাল্টা আইনের দ্বারস্থ হওয়ার কথা ভবছেন আসিফ।

 

রেজাউল কবির গণমাধ্যমকে বলেন, সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর বিজ্ঞ আদালতে হাজির হলে বিচারক বিশেষ বিবেচনায় তার জামিনের নির্দেশ দেন।

ন্যান্সির করা মামলায় জামিন, পাল্টা আইনের দ্বারস্থ হবেন আসিফ

এদিকে জামিনের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক স্টাটাসে আসিফ লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ..। মাননীয় আদালত আমাকে স্থায়ী জামিন দিয়েছেন। কথা দিচ্ছি, দেখা হবে বিজয়ে ইনশাআল্লাহ। সবার কাছে কৃতজ্ঞ আমাকে মানসিকভাবে শক্তি যোগানোর জন্য। ইচ্ছা না থাকলেও এবার আইনের দ্বারস্থ হবো, আমি বাধ্য। আপনাদের দোয়াই আমার শক্তি। ভালবাসা অবিরাম…আল্লাহু আকবর…।’

আলহামদুলিল্লাহ আলহামদুলিল্লাহ আলহামদুলিল্লাহ.. মাননীয় আদালত আমাকে স্থায়ী জামিন দিয়েছেন। কথা দিচ্ছি দেখা হবে বিজয়ে…

 

এর আগে গত বছরের ১০ জুলাই তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ময়মনসিংহের কোতোয়ালি মডেল থানায় অভিযোগ করেন ন্যান্সি। পরে নির্দেশ তদন্ত করে সত্যতা পাওয়ায় ময়মনসিংহের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রসিকিউশন জমা দেয় পুলিশ। পরে ময়মনসিংহের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক আব্দুল হাই আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন।

ন্যান্সির করা মামলায় জামিন, পাল্টা আইনের দ্বারস্থ হবেন আসিফ

জিডিতে ন্যান্সি উল্লেখ করেন, আমার কণ্ঠ সফলতায় হিংসাত্মক মনোভাব পোষণ করে বিবাদী আসিফ আকবর বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ইউটিউব, রেডিও ও টিভি চ্যানেলে আমার বিরুদ্ধে মানহানিকর, মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশ করে আসছেন।

তিনি আরও বলেন, আসিফ আকবর আমার গাওয়া ১২টি গান অনুমতি না নিয়ে স্বত্ব বিক্রি করে দেন। আমি আমার ১২টি গানের স্বত্ব দাবি করলে বিবাদীর রোষানলে পড়ি। যার পরিপ্রেক্ষিতে বিবাদী আসিফ আকবর বিভিন্ন তারিখ ও সময়ে আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ইউটিউব ও টিভি চ্যানেলে বিভ্রান্তিকর তথ্যসহ কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা শুরু করেন। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করেন।