নিষিদ্ধ হওয়ার পর খেলা নিয়ে প্রথম মুখ খুললেন সাকিব

প্রকাশিত: ১:২৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২২, ২০২০

বাংলাদেশের ক্রিকেটের ওপর এক ‘প্রলয়ংকারী ঘূর্ণিঝড়’ বয়ে যায় গত বছরের অক্টোবরে। এই ঝড়ে বাংলাদেশ এক বছরের জন্য হারায় দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় নক্ষত্র বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। যেটা তার ধ্যান-জ্ঞান, সেটাতে নিষিদ্ধ হওয়ার পর সাকিব চলে গিয়েছিলেন আড়ালে। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে প্রকাশ্যে আসতে থাকেন এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার।

আজ বুধবার বিকেলে ডেইলি স্টার সেন্টারের এস এম মাহমুদ হলে নিষিদ্ধ হওয়ার প্রায় তিন মাসের মাথায় গণমাধ্যমের সঙ্গে ক্রিকেট নিয়ে কথা বলেন সাকিব। তবে হাসি-খুশি থাকলেও তার মাঝে দেখা গেছে চাপা কষ্ট। কিছু প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন সাবলীলভাবে। আর কিছু প্রশ্নের উত্তর ছেড়ে দিয়েছেন সময়ের ওপর।

যেমন আপনি কী করছেন, কীভাবে ফিরে আসবেন-এমন প্রশ্নের মুখোমুখি হয়ে সাকিবের মন্তব্য, ‘সব কিছুর উত্তর সময় বলে দেবে।’

‘সেটার জন্য আসলে ওয়েট করতে হবে আপনাদের, আমি ফিরে আসা পর্যন্ত। কারণ আমি বললাম অনেক কিছু করে আসছি এবং আসার পর সেটা প্রমাণিত হলো না-সেটার ফল খুব একটা ভালো হবে না, গ্রহণযোগ্যতাও থাকবে না। অপেক্ষা করেন, সবকিছু যদি ঠিকঠাক থাকে সবকিছুর উত্তর সময়ে বলে দেব’-এভাবেই বলছিলেন সাকিব।

তাকে ছাড়া বাংলাদেশ ভারতের বিপক্ষে তাদের মাটিতে একটি পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলেছে। মাঝে হয়ে গেলো বঙ্গবন্ধু বিপিএল, যেখানে সাকিব ছিলেন নিয়মিত পারফর্মার। আজ রাতেই আবার পাকিস্তান যাচ্ছে বাংলাদেশ দল। সাকিব থাকলে তার নেতৃত্বেই সব কিছু হতো।

সাকিব কি মিস করেন না-এমন প্রশ্নে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের কূটনৈতিক উত্তর, ‘আসলে একটা জিনিসের সঙ্গে যখন অনেক দিনের সম্পর্ক থাকে, সেটা পছন্দের হোক না পছন্দের হোক, আপনি চান কিংবা না চান-সেটাকে মিস করবেন এটাই স্বাভাবিক। আমার ক্ষেত্রেও ভিন্ন কিছু না, স্বাভাবিকভাবে আমিও মিস করছি।‘

পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে যাচ্ছে ক্রিকেট দল। সতীর্থদের শুভকামনা জানিয়ে সাকিব বলেছেন বাংলাদেশের জিতে আসা উচিত।

‘আমি সবাইকে উইশ করব, যেন নিরাপদভাবে, ভালোভাবে পৌঁছাতে পারে এবং খেলে ফিরে আসতে পারে। অবশ্যই যেন বাংলাদেশের জন্য সাফল্য নিয়ে আসতে পারে। শ্রীলঙ্কা লাস্ট টাইম যখন গেলো তারা ৩-০ তে জিতে এসেছে, আমাদেরও ভালো ফলাফল করা উচিত’-যুক্তি দিয়ে এভাবেই বলেছেন সাকিব।

খেলার বাইরে থাকলেও নিয়মিত যোগাযোগ আছে টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে। কথা হয় নিয়মিত কোচিং স্টাফের সঙ্গে।

সাকিব বলেন, ‘প্রধান কোচের সাথে রেগুলার কথা হয়, কোচিং স্টাফের সঙ্গে রেগুলার কথা হয়। শুধু খেলা নিয়ে কথা হতে হবে এমন নয়। অনেকের সঙ্গেই রেগুলার কথা হয় আমার।’

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব আইসিসি’কে না জানানোয় দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। তবে তার এক বছরের শাস্তি শিথিল করা হয়েছে। সবকিছু ঠিক ঠাক থাকলে সাকিবকে আবারও দেখা যাবে এই বছরের অক্টোবরের ৩০ তারিখ থেকে।