নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন বাবুগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা

প্রকাশিত: ৭:৫৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২১

আরিফ হোসেন, বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সরকার। সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে স্থানীয় প্রশাসন। আর এসব নির্দেশনা পালনে প্রথম থেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে চলেছেন বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আমীনুল ইসলাম। বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় যোগদানের পর থেকে উপজেলার মানুষের সেবায় নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন এই উপজেলা নির্বাহী অফিসার। একজন দায়িত্বশীল উপজেলা নির্বাহী অফিসার একটি উপজেলার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। একজন কর্মঠ দায়িত্বশীল অফিসারই পারেন শ্রম ও দক্ষতার মাধ্যমে একটি উপজেলার পরিবর্তন ঘটাতে। আর এটির বাস্তব উদাহরণ বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোঃ আমীনুল ইসলাম।

 

মোঃ আমীনুল ইসলাম ২০২০ সালের ১২ জুলাই বাবুগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী অফিসার হিসেবে যোগদান করেন। তাঁর যোগদানের পর থেকেই উপজেলার বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকা-ে গতিশীলতা ফিরে এসেছে। জানা গেছে, ইউএনও মোঃ আমীনুল ইসলাম দায়িত্ব গ্রহণের পর পরই উপজেলার বিভিন্ন স্থানের অবৈধ দখলদারকে উচ্ছেদ করেন। উপজেলার নদী ভাঙন কবলিত এলাকাগুলো থেকে মাটি ব্যবসায়ীরা মাটি কেটে বিক্রি করতেন যাতে নদী ভাঙনের তীব্রতা বেড়েই চলছে। অবৈধ মাটি ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় এনে জেল জরিমানা করেন ইউএনও। এলাকায় অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ করা হয়।

 

ইউএনও আমীনুল ইসলামের তদারকিতে অন্য যে কোনো সময়ের তুলনায় বর্তমানে সকল উন্নয়নমূলক ফাইলের কার্যক্রম তড়িৎ গতিতে হচ্ছে। করোনাকালীন সময়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ও সুরক্ষা মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করে সকল ধরনের অফিসিয়াল কর্মকান্ড চলমান রেখেছেন। যে কারণে এ উপজেলায় তিনি যোগদানের পর থেকে করোনা আক্রান্তের হার কমে এসেছে।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আমীনূল ইসলাম নিজ উদ্যোগে উপজেলার বিভিন্ন অফিস, বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ, পুলিশসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের মাঝে করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষা পেতে কয়েক হাজার মাস্ক ও হ্যান্ডস্যানিটাইজার বিতরণ করেছেন। উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজার তদারকির মাধ্যমে ভোক্তাদের অধিকার নিশ্চিতকরণে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন। উপজেলার প্রধান প্রধান বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার মাধ্যমে দ্রব্যমূল্য সঠিক রাখা, ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে ভোক্তা সাধারণের আস্থার প্রতিকে পরিণত হয়েছেন। সর্বোপরি অতিসম্প্রতি দেশব্যাপী চলমান ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের মাঝে আবাসন ব্যবস্থাকরণের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় বাবুগঞ্জে ১৭০ পরিবারের মাঝে আবাসনের ব্যবস্থা করণের লক্ষ্যে নিরলস ভাবে স্বচ্ছতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। যা উপজেলার সর্ব মহলে প্রসংশিত হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, দেশের এমন দুর্যোগময় মুহূর্তে সত্যিই ইউএনও’র ভূমিকা প্রশংসনীয়। দেশের জন্য এধরনের নিবেদিত প্রাণ ইউএনও সকল উপজেলায় থাকলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হত।

 

বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আমীনুল ইসলাম বলেন, আমি কর্মে বিশ্বাসী। নিজের দায়বদ্ধতা থেকেই এই সকল কাজ করছি। এসব কাজে বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার স্যার সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ আমাকে সহযোগিতা করছেন।