নাজমুল হোসেন শান্তর অনবদ্য ব্যাটিং

প্রকাশিত: ২:৩১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০২০

জিতলেই সরাসরি ফাইনালে। এমন সমীকরণের ম্যাচে ব্যাটিং তাণ্ডব চালাচ্ছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। আগের ম্যাচে ঢাকা প্লাটুনের বিপক্ষে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করে দলকে রেকর্ড জয় উপহার দেন শান্ত। আজও সেই ব্যাটিং ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছেন।

সোমবার সন্ধ্যায় মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপিএল প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রাজশাহী রয়েলসের বিপক্ষে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ২.৫ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে প্রাথমিক বিপর্যয়ে পড়ে যায় খুলনা টাইগার্স।

দলীয় ২০ রানেই তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরার কথা ছিল নাজমুল হোসেন শান্তর। শোয়েব মালিকের বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরের পথে হাঁটেন নাজমুল। কিন্তু আম্পায়ার তাকে থামিয়ে দেন। রিভিউতে দেখা যায় শোয়েব মালিকের করা বলটি ‘নো’ ছিল। ভাগ্যবশত নতুন লাইফ পান শান্ত।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে শামসুর রহমান শুভকে সঙ্গে নিয়ে গড়েন ৭৮ রানের জুটি। ৩১ বলে দুই চার ও এক ছক্কায় ৩২ রান করে ফেরেন শুভ। শামসু আউট হওয়ার পর ১৪তম ওভারে শোয়েব মালিককে ছক্কা হাঁকিয়ে ফিফটি পূর্ণ করেন শান্ত।

কিন্তু ব্যক্তিগত ৫৭ রানে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে আফিফ হোসেনের হাতে ক্যাচ তুলে দেন শান্ত। আফিফ ক্যাচটি তালুবন্দি করতে না পারায় দ্বিতীয় দফায় লাইফ পান খুলনার এ তারকা ওপেনার।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত খুলনার সংগ্রহ ২০ ওভারের খেলা শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রান। ৫৭ বলে ৭ টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৭৮ রানে অপরাজিত নাজমুল হোসেন শান্ত।

খুলনা টাইগার্স: নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদী হাসান মিরাজ, রাইলি রুশো, মুশফিকুর রহিম, নজিবুল্লাহ জাদরান, শামসুর রহমান শুভ, রবি ফ্রাঙ্কলিঙ্ক, মোহাম্মদ আমির, শফিউল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম ও আমিনুল ইসলাম।

রাজশাহী রয়েলস: লিটন কুমার দাস, আফিফ হোসেন, শোয়েব মালিক, আন্দ্রে রাসেল, রবি বোপারা, অলক কাপালি, ফরহাদ রেজা, তাইজুল ইসলাম, কামরুল ইসলাম রাব্বি, মোহাম্মদ ইরফান ও আবু জায়েদ রাহী।

Sharing is caring!