নলছিটিতে স্কুল ছাত্রীকে নিপীড়নের পর গা ঢাকা দিলেন শিক্ষক

প্রকাশিত: ৪:১০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৬, ২০২০

মো. এনায়েত করিম, নলছিটি প্রতিনিধি ::

ঝালকাঠির নলছিটিতে এক স্কুল ছাত্রীকে নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে মো. রিপন হোসেন হাওলাদার নামে এক স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার পর থেকে ওই শিক্ষক গা ঢাকা দিয়েছেন। তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় রোববার রাতে (২৫ অক্টোবর) ওই ছাত্রীর মা নলছিটি থানায় একটি মামলা করেছেন। অভিযুক্ত মো. রিপন হোসেন হাওলাদার উপজেলার মানপাশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এবং শহরের পুরানবাজার এলাকার মো. তাহের হাওলাদারের ছেলে। শহরের পুরানবাজার এলাকায় গত ২১ অক্টোবর (বুধবার) সকালে এ ঘটনা ঘটে। ওই ছাত্রীকে নিপীড়নের পর থেকে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য শিক্ষক রিপন হোসেন ও স্থানীয় একটি মহল চেষ্টা চালাচ্ছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। তবে শেষ রক্ষা হয়নি।

অভিযোগসূত্রে জানাগেছে, শিক্ষক রিপন হাওলাদার ছয়/সাত মাস ধরে ওই ছাত্রীটিকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতেন। ওই ছাত্রী শহরের একটি স্কুলে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ে। গত ২১ অক্টোবর (বুধবার) সকাল ১০ টায় রিপন হাওলাদার ওই ছাত্রীকে তার বাসার সম্মুখে একা পেয়ে জাপটে ধরেন। তিনি ছাত্রীর শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে নিপীড়ন করেন। এসময় ছাত্রীটির ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এলে রিপন সটকে পড়েন। এ ঘটনার পর থেকে তিনি গা ঢাকা দিয়েছেন। এ বিষয়ে জানতে ওই শিক্ষকের মোবাইল ফোনে কল দিলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

নলছিটি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আ. হালিম তালুকদার জানান, ওই ছাত্রীটিকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষক রিপন হাওলাদারের বিরুদ্ধে রোববার রাতে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Sharing is caring!