নলছিটিতে মতলেব কসাই ও তার সহযোগীদের হামলায় আহত ৫

প্রকাশিত: ১১:৫১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নলছিটি উপজেলার লঞ্চঘাট এলাকায় তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে মামুন সহ পরিবারের ৫ কসাই এর হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে মতলেব কসাই ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে। এ সময় তারা দোকান থেকে ২ লাখ ৭০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। রবিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় লঞ্চঘাট এলাকায় মামুন কসাইয়ের মাংসের দোকানে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, পৌরসভার সাত নং ওয়ার্ড সূর্যপাশা এলাকার আব্দুস সুবহানের ছেলে মাংস বিক্রেতা মামুন কসাই, জসিম কসাই, আউয়াল কসাই, ইলিয়াস কসাই ও আনিস কসাই।

 

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক নলছিটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন, সেখানে আহতদের মধ্যে মামুনের অবস্থার অবনতি ঘটায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে হাসপাতালের সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।
আহত মামুন জানান, মামুন একটি অনুষ্ঠানের অর্ডারের জন্য ছাগল কিনে দোকানে নিয়ে আসেন। মতলেব ঐ ছাগল দেখে তার কাছে বিক্রি করতে বলেন।
মামুন বিক্রি করতে না চাইলে মতলেব ও তার সহযোগীরা ক্ষিপ্ত হন।

 

এরই জের ধরে একপর্যায়ে মতলেব কসাই ও তার ছেলে সোহাগ এবং মতলেবের ভাতিজা বাদল, বাবুল, সাহিনসহ ২৫-৩০জনের একদল লোক পরিকল্পিতভাবে কশাই মামুনের উপর হামলা চালায়। মামুন কে বাঁচাতে তার ভাই জসিম, আউয়াল, ইলিয়াস এবং আনিস আসলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ি পিটিয়ে রক্তাক্ত করেন মতলেব সহ অন্যান্য সহযোগী সন্ত্রাসীরা।

এ বিষয়ে ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম টিটু জানান, তুচ্ছ একটা বিষয় নিয়ে মামুনসহ ৫ জনের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এদের মধ্যে গুরুতর মামুনকে উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর চেয়ে আর বেশি কিছু আমি জানিনা।

এ ঘটনায় নলছিটি থানার অফিসার্স ইনচার্জ আলী আহমেদ জানান, অভিযোগ দেয়া হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।