নগরীতে পাওনা টাকার জেরে যুবককে মাদকাসক্ত দম্পতির মারধর

প্রকাশিত: ১:০৬ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৭, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পাওনা টাকার জেরে বরিশালে যুবককে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে নগরীর সদর রোডে এই ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার যুবক নুরুল ইসলাম রুম্মান ব্রাউনকম্পাউন্ড এলাকার বাসিন্দা। এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন ভুক্তভোগী রুম্মান।

আহত সূত্র জানায়, বেশকিছুদিন আগে জর্ডান রোড এলাকার বাসিন্দা তানভীর হোসেন রিয়াদ ৫ হাজার টাকা ধার বাবদ গ্রহণ করেন রুম্মানের কাছ থেকে। পরবর্তীতে পাওনা টাকা ফেরত চাইলে উভয়ের মধ্যে মনোমালিন্যের সৃষ্টি হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে দৈনন্দিন কাজে সদর রোড থেকে হেঁটে বাসায় ফিরছিলেন রুম্মান। পথিমধ্যে ইশ্বর বসু রোড এলাকায় মোটরসাইকেল আরোহী রিয়াদ এবং তার স্ত্রী মোনা অতর্কিত হামলা চালান রুম্মানের উপর।

এসময় দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। এক পর্যায়ে ধাওয়া দিলে দৌড়ে পালিয়ে গিয়ে প্রাণ রক্ষা করেন রুম্মান। ভুক্তভোগী যুবক রুম্মান আরও জানান, গত ইদুল ফিতরের সময় ৩ দিনের মধ্যে পরিশোধের কথা বলে আমার কাছ থেকে নগদ ৫ হাজার টাকা ধার নিয়েছিল রিয়াদ। নির্দিষ্ট সময় অতিক্রম হওয়ার পরও পাওনা টাকা ফেরত দেয়া নিয়ে তালবাহানা শুরু করে সে। এমনকি আমাকে নানাভাবে হুমকিও দিয়ে আসছিল। বৃহস্পতিবারের ঘটনা টি সেই হুমকিরই অংশ উল্লেখ করে নিজের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শংকার কথা জানিয়েছেন তিনি।

রুম্মান দাবি করেন, রিয়াদ এবং মোনা দম্পতি মাদকাসক্ত। এছাড়া রিয়াদ মাদক সেবন-বিক্রির সাথে জড়িত। তার নামে রয়েছে বহু অভিযোগ। কিন্তু সন্ত্রাসী কার্যকলাপের কারণে তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পান না কেউ।

এদিকে এ বিষয়ে জানতে রিয়াদের ব্যবহৃত মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
কোতয়ালি মডেল থানার ওসি নুরুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান, মারামারির ঘটনাটি তার জানা নেই। এ বিষয়ে কেউ অভিযোগও দেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন বিএমপির এই কর্মকর্তা।

Sharing is caring!