দৌলতখানে ২ মেয়র প্রার্থীর মিছিলকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষ

প্রকাশিত: ৬:০৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০২০
মো. গজনবী, দৌলতখান প্রতিনিধিঃ 
ভোলার দৌলতখানে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার রাতে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ২ মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। নিউজ লেখা পর্যন্ত দুই গ্রুপের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া-পাল্টা দেওয়ার চলমান রয়েছে।এ ঘটনায়  জাকির হোসেন তালুকদার ও হামিদুর রহমান টিপু পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিয়েছেন।
উক্ত ঘটনায় আহতরা হচ্ছে নুরুল ইসলাম (৩০), নিয়াজ (২৫), রাছেল (২৫), ভুট্টু (৩০), হারুন (২৫), হেজু (৩০) ও আনোয়ার। আহতরা সবাই দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন বলে হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দৌলতখান পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী জাকির হোসেন তালুকদারের নেতৃত্বে  একটি মিছিল দক্ষিন মাথা হয়ে  বাজারের উত্তর মাথায়  গিয়ে দলীয় কার্যালয়ে আসছিলো। অপরদিকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী অরেক প্রার্থী হামিদুর রহমান টিপু সমর্থিত একটি মিছিল বাজারের  দক্ষিন  মাথা থেকে দলীয় কার্যালয়ে আসছিলো। ২টি মিছিল মধ্য বাজারে আসলে  দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষ ছড়িয়ে পরলে বাজারের ব্যাবসায়ীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পরে।  মুহুর্তের মধ্যে সবাই দোকানপাট বন্ধ করে পালিয়ে যায়।
  পুলিশ ঘটাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
 দৌলতখান পৌরসভার মেয়র জাকির হোসেন তালুকদার জানান,  ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুল দৌলতখানে এসেছে। আমরা বাজারের উত্তর মাথায় তাঁকে সংবর্ধনা দিয়ে দলীর কার্যালয়ে আসার পথে বাজারের মাঝামাঝি আসলে হামিদুর রহমান টিপুর সমর্থকরা আমাদের উপর হামলা চালায়। এতে করে আমার ৫-৭ জন নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয়।  তিনি আরো জানান,  হামলাকারীদের মধ্যে সবাই ছিল বহিরাগত কেউই পৌরসভার বাসিন্দা না।
 হামিদুর রহমান টিপুর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান,  জাকির হোসেন তালুকদার বহিরাগত লোক এনে আমাদের নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করেছে।
অপরদিকে আওয়ামীলীগ সমর্থিত  মেয়র প্রত্যাশী আব্দুল খালেক  জানান, আওয়ামীলীগ একটি সুসংগঠিত দল। আজকের ঘটনাটি অত্যন্ত নিন্দাজনক।  যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত, যত দ্রুত সম্ভব তাদের  বিচারের দাবি জানাই।

Sharing is caring!