দুটি চোরাই মহিষ ও পিকআপসহ তিন চোরকে আটক করেছে বন্দর থানা পুলিশ

প্রকাশিত: ৮:৫৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৭, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ গভীর রাতে মহিষ চুরি করে পালানোর সময় দুটি মহিষসহ তিন চোরকে আটক করেছে মহানগরীর বন্দর (সাহেবের হাট) থানা পুলিশ। এসময় চুরির কাজে ব্যবহৃত একটি পিকআপ ভ্যান জব্দ করেছে তারা।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাধীন বরিশাল-ভোলা মহাসড়কের তালুকদার মার্কেট নামক স্থানে চেক পোস্ট বসিয়ে তাদের আটক করা হয়। এই ঘটনায় ছয়জনকে নামধারীসহ মোট ১৪ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে ই-মেইলে প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- বরিশাল নগরীর ২৫ নম্বর ওয়ার্ডস্থ রূপাতলী উকিলবাড়ী সড়কের বাসিন্দা ফিরোজ হাওলাদারের ছেলে মো. লোকমান হাওলাদার (২০), ২২ নম্বর ওয়ার্ডের সিঅ্যান্ডবি রোডস্থ হাতেম আলী কলেজ চৌমাথা এলাকার ঘোষ বাড়ীর ভাড়াটিয়া ও উজিরপুরের কালিয়াতা গ্রামের মো. ফিরোজ মল্লিকের ছেলে মো. নাঈম ইসলাম (২৭) এবং একই এলাকার ভাড়াটিয়া ও বরগুনার বেতাগী উপজেলার কালিকাবাড়ী জমির উদ্দিন স্কুল সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা মো. কামাল হাওলাদারের ছেলে মো. সাগর হাওলাদার।

এছাড়া এহাজারনামীয় তিন পলাতক আসামি হলেন- বরিশাল নগরীর ২৭ নম্বর ওয়ার্ডস্থ ডেফুলিয়া এলাকার বাসিন্দা মোসলেম খানের ছেলে মো. সুজন খান (৩৫) তার বড় ভাই মো. জিয়া খান (৩৮) এবং বন্দর থানাধীন নেহালগঞ্জের বাসিন্দা মো. আলাউদ্দিন বেপারী (৪০)। বাকি ৮ জন অজ্ঞাতনামা আসামি।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া সেল থেকে জানানো হয়েছে, ‘২৭ আগস্ট গভীর রাতে বন্দর থানাধীন নেহালগঞ্জ থেকে দুটি মহিষ চুরি করে পিকআপে তুলে নিয়ে যাচ্ছিলো চোর চক্রের সদস্যরা।

পথিমধ্যে সেখানে টহলে থাকা এএসআই মো. ওসমান গণি’র দ্রুত গতিতে পিকআপটি যেতে দেখলে সন্দেহের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি বেতার যন্ত্রের মাধ্যমে বন্দর থানা পুলিশকে অবগত করা হলে তারা বরিশাল-ভোলা মহাসড়কের তালুকদার হাট নামক স্থানে চোক পোস্ট বসিয়ে তিনটি মহিষ ও পিকআপ ভ্যানসহ ওই চার চোরকে আটক করে।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, ‘মহিষ উদ্ধারের খবর পেয়ে এর মালিক বন্দর থানা এলাকার বাসিন্দা মো. হাসমত আলী মোল্লা থানায় এসে নিজের মহিষ শনাক্ত করেন। পাশাপাশি তিনি নিজে বাদী হয়ে বন্দর থানায় মামলা দায়ের করেছেন (নম্বর-৬)। মামলার পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Sharing is caring!