তিন সড়কে রিকশা বন্ধের সিদ্ধান্তে সড়ক অবরোধ, দুর্ভোগ

প্রকাশিত: ৮:৫২ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০১৯

তিনটি সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এবং তা বাতিলের দাবিতে রাজধানীর রামপুরা বাজারের সামনের সড়ক অবরোধ করেছেন রিকশাশ্রমিক ও মালিকেরা। আজ মঙ্গলবার সকাল সাতটার পরে তাঁরা এই সড়ক অবরোধ শুরু করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাঁদের অবরোধ-বিক্ষোভ চলছে।

সড়ক অবরোধের কারণে বেশ দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ। সকালে রাজধানীর রামপুরা, মালিবাগ, খিলগাঁও মধুবাগ এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, অফিসগামী মানুষ হেঁটে গন্তব্যস্থলের উদ্দেশে যাচ্ছেন। কোনো রিকশা নেই, এমনকি সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংখ্যাও খুব কম। দু-একটি রিকশা দেখা গেলেও চালক যেতে রাজি হচ্ছেন না। স্কুলের উদ্দেশে সন্তানদের নিয়ে বের হয়ে অনেক অভিভাবকই দুর্ভোগে পড়েন। কোনো পরিবহন না পেয়ে তাঁদের রাস্তায় হেঁটে যেতে দেখা গেছে।রামপুরা এলাকার বাসিন্দা আবদুল্লাহ হিল ওয়ারিশ জানান, আজ সকাল আটটার দিকে বাসা থেকে অফিসের উদ্দেশে বের হন। তাঁর অফিস মতিঝিলে। অবরোধের কারণে অনেক যানবাহন সেখানে আটকে থাকে। তীব্র যানজটের পড়েন তিনি। বাধ্য হয়ে অনেকটা ঘুরে অফিসে পৌঁছান।

মগবাজার ওয়্যারলেস এলাকায় বাচ্চাকে স্কুলে নিতে গিয়ে বিপাকে পড়েন শাহানা আক্তার। তিনি বলেন, ‘সময়মতোই মালিবাগ থেকে বের হয়েছি। কোনো যানবাহন পাচ্ছি না। হেঁটে গেছি। মেয়েটার খুব কষ্ট হচ্ছে।খিলগাঁওয়ে এলাকার বাসিন্দা ফারজানা বলেন, ‘আমার অফিস কারওয়ান বাজারে। সকাল সাতটায় বাসা থেকে বের হয়েছি। খিলগাঁও থেকে মগবাজার রেললাইন পর্যন্ত পুরোটা পথ হেঁটে আসতে হয়েছে। কোনো রিকশা পাইনি। দু-একটা রিকশা দেখেছি। যাবে কি না জানতে চাইলে চালকেরা জানান, রিকশা নিয়ে বের হওয়ায় টায়ার ফাটিয়ে দেওয়া হয়েছে।’

খিলগাঁওয়ের আরেক কর্মজীবী নারী বলেন, ‘সব সময় রিকশাতেই যাওয়া–আসা করি। আজ কিছু না পেয়ে উবার মটোতে করে এসেছি।

Sharing is caring!