তানজিলা হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ১:৫৩ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৪, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ লক্ষ্মীপুরে স্বামীর বাড়িতে অত্যাচার ও নির্যাতন করে হত্যাকা-ের শিকার বরিশালের মেয়ে তানজিলা আক্তার আয়নার হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে নগরীর সদর রোডস্থ অশ্বিনী কুমার হলের সামনে বরিশালের সর্বস্তরের নাগরিকবৃন্দের ব্যানারে এই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এ মানববন্ধনে নিহতের স্বজন, সাবেক সহপাঠি শিক্ষার্থী, এলাকাবাসি ও বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন।

এসময় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন তানজিলার বৃদ্ধ বাবা মো. সাইদুর রহমান, মা রুনু খান, বাসদ বরিশাল জেলা শাখার আহ্বায়ক প্রকৌশলী ইমরান হাবীব রুমন, জেলার সদস্য সচিব ডা. মনিষা চক্রবর্তী, নারী নেত্রী হাসিনা বেগম নিলা, মো. হাসান বেপারী, মাসুমা বেগম, জাকিয়া সুলতানা লিপা, সাইদুল ইসলাম লিপি প্রমুখ।

এসময় বক্তারা তানজিলাকে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত স্বামীসহ সকল আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির এবং ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের দাবি জানান।
নিহতের পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, ‘বরিশাল সরকারি মহিলা কলেজ, বরিশাল জমজম হেলথ্ ইনস্টিটিউট, ঢাকা ইডেন কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী ছিলেন নগরীর ভাটিখানার মেয়ে তানজিলা রহমান খান (তানজিলা আক্তার আয়না)। এছাড়াও তিনি বরিশাল সাংস্কৃতিক অঙ্গনের একজন কর্মী ও কণ্ঠশিল্পী ছিলেন। তাকে লক্ষ্মীপুরে শ্বশুর বাড়িতে যৌতুকের টাকার দাবিতে হত্যা করা হয়।

তারা আরও জানান, ২০১৬ সালে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার সাইদেরখিল গ্রামের মোল্লা বাড়ির ছেলে জহিরুল ইসলামের সাথে তানজিলার বিয়ে হয়। ২০১৯ সালের আগষ্ট মাসে সামাজিক আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে তানজিলাকে শ্বশুর বাড়িতে উঠিয়ে নেয়া হয়। এর চার মাস পরে অর্থাৎ ডিসেম্বরে জহিরুল নিজেকে বেকার দাবি করে তানজিলার পরিবারের কাছে পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। মেয়ের শান্তির কথা ভেবে বাবা সাইদুর রহমান ২ লাখ টাকা দেয়। বাকি তিন লক্ষ টাকার জন্য শ্বশুর-শাশুড়ি, চাচী শাশুড়ি ও দেবরের প্ররোচনায় নির্যাতন শুরু হয় তানজিলার ওপর।

এরপর গত ৮ আগষ্ট সকালে তানজিলর স্বামী জহিরুল বরিশালে ফোন করে জানায় “তানজিলা চেয়ার থেকে পড়ে অচেতন হয়ে গেছে, আমরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছি”। এ সংবাদ পেয়ে তানজিলার ভাই ও ২ মামাসহ ৯ জন তানজিলার শ্বশুর বাড়িতে যাবার পূর্বে স্থানীয় থানায় বিষয়টি অবহিত করে। পুলিশ ওইদিনই বেলা ৩টার দিকে তানজিলার মরদেহ উদ্ধার করে এবং স্বামী জহিরুল ইসলামকে আটক করে। এই ঘটনায় তানজিলার ভাই সাইফুর রহমান ৯ আগষ্ট বাদী হয়ে লক্ষ্মীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

Sharing is caring!