তজুমদ্দিনে সুদের টাকার জন্য প্রবাসীর স্ত্রীকে নির্যাতন


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ৭:৫৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০২০

রফিক সাদী, তজুমদ্দিন প্রতিনিধি ॥

ভোলার তজুমদ্দিনে সুদের টাকার জন্য সৌদি প্রবাসির স্ত্রীকে মধ্যযুগীয় কায়দা দড়ি দিয়ে হাত বেঁধে নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় নির্যাতিতা প্রবাসির স্ত্রী বাদী হয়ে তজুমদ্দিন থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নে ১নং ওয়ার্ডের শিবপুর গ্রামের বাসিন্দা প্রবাসি রতন মিয়ার স্ত্রী বিবি জহুরা একই এলাকার নজরুল (নজু) এর স্ত্রী পাখি বেগমের কাছ থেকে এক বছর পূর্বে ৭০ হাজার টাকা নেয়। কিছুদিন আগে জহুরা বেগম স্থানীয় শাহিন মাষ্টার ও মোতাহারের উপস্থিতিতে ৭০ হাজার টাকা ফেরত দেয়। এ সময় পাখি বেগম সুদ বাবদ আরো ৩০ হাজার টাকা দাবী করেন।

জহুরা বেগম জানান স্বামী প্রবাসে করোনার কারণে আয় করতে না পারায় তাদের দাবীকৃত টাকা পরিশোধ করতে পারেনি। তারা সুদের টাকা জন্য চাপাচাপির একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার সকালে পাখি বেগম তার স্বামী নজরুল তার ভাই কবির ও হারুনসহ কয়েকজন মিলে আমাকে দড়ি দিয়ে হাত বেঁধে অমানবিক নির্যাতন করে। প্রতিবেশীরা থানায় সংবাদ দিলে পুলিশ এসে জহুরা বেগমকে উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত পাখি বেগমের সাথে সরজমিনে গিয়ে কথা বললে সুদের নয় খাজনার লেনদেনের কথা স্বীকার করে ৩০ হাজার টাকা পাওনা আছেন বলে দাবী করেন। এ টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটি হলে জহুরাকে ভয়ভীতি দেখানোর জন্য দড়ি নিলে জহুরা নিজেই দড়ি দিয়ে হাত বাঁধেন। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার জহুরা বেগম ৪জনকে অভিযুক্ত করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম জিয়াউল হক বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।