ঢাকা-বরিশাল নৌপথে আগাম টিকিট বিক্রি কার্যক্রম শুরু


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ১০:২৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০১৯

বার্তা ডেস্ক ॥ ঈদুল আজহা উপলক্ষে বরিশাল-ঢাকা নৌপথের লঞ্চগুলোতে এবারও আগাম টিকিট বিক্রির কার্যক্রম হাতে নিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এরই মধ্যে এই পথে চলাচলকারী কয়েকটি লঞ্চের কর্তৃপক্ষ কেবিন ও সোফার জন্য যাত্রীদের কাছ থেকে চাহিদাপত্র (সিøপ) সংগ্রহ করেছে। এখন সেসব যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। এরপর যাত্রীদের হাতে তুলে দেওয়া হবে টিকিট। আবার অন্য কয়েকটি লঞ্চের কর্তৃপক্ষ ‘সরাসরি আগে এলে আগে পাবেন’ ভিত্তিতে কেবিন ও সোফার টিকিট বিক্রি শুরু করেছে। লঞ্চমালিকদের সূত্র জানায়, এবার ঈদুল আজহা ঘিরে দীর্ঘ ছুটির ‘ফাঁদে’ পড়বে দেশ। এ জন্য আগের চেয়ে এবার সড়ক, রেল, নৌ ও আকাশপথে যাত্রীদের চাপও থাকবে বেশি। বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলে নৌপথে যাত্রীদের চাপ বেশি থাকবে। যাত্রীদের বাড়তি চাপ সামলাতে নৌপথে বেসরকারি লঞ্চগুলোর পাশাপাশি সরকারি স্টিমার-জাহাজেরও ঈদের বিশেষ সার্ভিস থাকবে। বাংলাদেশ যাত্রীবাহী নৌপরিবহন সংস্থার কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি ও সুন্দরবন নেভিগেশনের মালিক সাইদুর রহমান বলেন, এবার বেশির ভাগ বেসরকারি লঞ্চের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে আগামী ১ আগস্ট থেকে। সাইদুর রহমান বলেন, বিশেষ সার্ভিসের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে আগামী ১ অথবা ২ আগস্ট ঢাকায় লঞ্চমালিকদের সভা হওয়ার কথা রয়েছে, সেখানে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। তবে যেহেতু ১২ আগস্ট ঈদুল আজহার সম্ভাব্য তারিখ, তাই ৮ আগস্ট থেকে বিশেষ সার্ভিস শুরুর সম্ভাবনা রয়েছে। ঈদের পর ২০ আগস্ট পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকতে পারে। এ জন্য ১ আগস্ট থেকে সুন্দরবন নেভিগেশন কোম্পানি বিশেষ সার্ভিসের অগ্রিম টিকিট বিক্রির কার্যক্রম শুরু করবে। বরিশাল-ঢাকা নৌ-রুটের সুরভী লঞ্চের কাউন্টারের দায়িত্বপ্রাপ্ত এক কর্মকর্তা জানান, ঈদুল আজহা উপলক্ষে তাঁদের কোম্পানির লঞ্চের অগ্রিম টিকিটের আবেদন ২৩ জুলাই সম্পন্ন হয়েছে। এর মধ্যে যাচাই-বাছাইও প্রায় শেষ। ২৭ জুলাই যাত্রীদের কাছে টিকিট বিতরণ শুরু হবে। সালমা শিপিং লাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঞ্জুরুল আহসান বলেন, আগের নিয়মেই তাঁরা কীর্তনখোলা লঞ্চের ঈদ সার্ভিসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি কার্যক্রম শুরু করেছেন। আগে এলে আগে পাবেন ভিত্তিতে তাঁরা টিকিট বিক্রি করছেন। এবার ঈদুল আজহার বিশেষ সার্ভিস শুরুর সময় বরিশাল-ঢাকা নৌপথে নতুন যুক্ত হচ্ছে এমভি কুয়াকাটা-২ নামে আরও একটি লঞ্চ। লঞ্চটি আগস্টের প্রথম দিকেই এই পথে চলাচল শুরু করবে বলে জানান এর মালিক আবুল কালাম খান। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) বরিশাল কার্যালয়ের নৌনিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের উপপরিচালক আজমল হুদা সরকার বলেন, ২৮ জুলাই ঢাকায় নৌপরিবহন অধিদপ্তরে ঈদুল আজহা উপলক্ষে বিশেষ নৌসেবার বিষয়ে বৈঠক হবে। ওই বৈঠক থেকেই বিশেষ সার্ভিসসহ সার্বিক বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। ঈদুল আজহা উপলক্ষে বরাবরের মতো সরকারি নৌপরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) পাঁচটি নৌযান দক্ষিণাঞ্চলে বিশেষ সার্ভিস দেবে। সংস্থার বরিশাল আঞ্চলিক কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক সৈয়দ আবুল কালাম আজাদ বলেন, আগের মতো এবারও ঢাকা-মোরেলগঞ্জ ভায়া বরিশাল নৌপথে সংস্থার পাঁচটি নৌযানে বিশেষ সার্ভিস দেওয়া হবে। এটা শুরু হবে ৮ আগস্ট থেকে এবং তা ঈদের পর এক সপ্তাহ পর্যন্ত চলবে। বিশেষ সার্ভিসের টিকিট বিক্রি শুরু হবে ১ আগস্ট থেকে। এই টিকিট ঢাকা থেকে অথবা অনলাইনে বুকিং দেওয়া যাবে।