ডা. জাফরুল্লাহর ফুসফুসে তিন ধরনের জীবাণু

প্রকাশিত: ৬:২৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২০

বার্তা ডেস্ক ॥ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহর চৌধুরীর সিটি স্ক্যান করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. ফরহাদ এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘ডা. জাফরুল্লাহর চৌধুরী বর্তমানে শারীরিকভাবে বেশ দুর্বল। সকালে নাশতা করেছেন। বিএসএমএমইউতে মাথা ও বুকের সিটি স্ক্যান করানো হয়েছে। এরপর আবার গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে ফিরে এসেছেন তিনি। গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতাল থেকে বিএসএমএমইউতে আনা-নেওয়ার সময় শারীরিক দুর্বলতার কারণে অন্যের সহায়তা নিয়ে তাকে হাঁটতে হয়েছে। গলার ইনফেকশনের কারণে করোনামুক্ত ডা. জাফরুল্লাহর চৌধুরীর কথা বলতে বেশ কষ্ট হয়। খুব ধীরে ধীরে তার উন্নতি হচ্ছে।’

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের সংশ্লিষ্টরা জানান, অনেক আগে থেকেই চিকিৎসকরা ডা. চৌধুরীকে সিটি স্ক্যান করার পরামর্শ দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু কোনোভাবেই তাকে রাজি করানো যায়নি। সব সময়ই তিনি বলে আসছেন, গরিব মানুষের পক্ষে তো এই চিকিৎসা করা সম্ভব নয়। সম্প্রতি, তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে অবশেষে তাকে রাজি করানো সম্ভব হয়েছে। গত ২৫ মে ডা. জাফরুল্লাহর চৌধুরীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিট দিয়ে পরীক্ষাতেই তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। পরে বিএসএমএমইউ’র পিসিআর পরীক্ষাতেও তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর গত ১২ জুন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত অ্যান্টিজেন কিট দিয়ে পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। পরে আরটি-পিসিআর পরীক্ষার ফলাফলেও তার কোভিড-১৯ নেগেটিভ এসেছে। তবে ফুসফুসের সংক্রমণ, গলার ইনফেকশনসহ আরও কিছু শারীরিক জটিলতার কারণে তিনি এখনো গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

Sharing is caring!