জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এ রকমটাই আশা করেছিলাম : পাপন

প্রকাশিত: ৩:৩০ অপরাহ্ণ, মার্চ ১, ২০২০

জিম্ববাবুয়ের বিপক্ষে তিন ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে একতরফাভাবে জিতেছে বাংলাদেশ। ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফর্মেন্সের পর বল হাতেও টাইগাররা দেখিয়েছে দারুণ নৈপূণ্য। ৩২২ রানের বিশাল টার্গেটে খেলতে নেমে সফরকারীরা ১৬২ রানে অলআউট হয়ে যায়। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এই ম্যাচে মাশরাফিরা জেতেন ১৭০ রানে। প্রায় আট মাস পর ওয়ানডেতে জয়ের মুখ দেখে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।

টাইগারদের ওয়ানডে ইতিহাসে রানের দিক থেকে এটি সবচেয়ে বড় জয়। এর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৬৩ রানে জিতেছিল টাইগাররা।

সিলেটে টাইগারদের খেলা দেখে তৃপ্ত বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনি জানান, টাইগারদের কাছে এমনটাই আশা করেছিলেন তিনি। ‘ম্যাচটা যে রকম আশা করেছি সেরকমই হয়েছে। এ রকমটাই আশা করেছিলাম। দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছে লিটন এতে কোনো সন্দেহ নেই, এ ছাড়া শেষের দিকে সাইফউদ্দিনও দারুণ একটা ইনিংস খেলেছে।’

লিটন দাসের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি, মিথুনের ঝোড়ো ব্যাটিং আর সাইফউদ্দিনের ক্যামিও ইনিংসে ভর করে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ছয় উইকেট হারিয়ে ৩২১ রান করে স্বাগতিকরা।

সর্বোচ্চ ১২৬ রান করেন লিটন। ৫০ রান করেন মোহাম্মদ মিথুন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এটি তার সর্বোচ্চ রান, আর যেকোনো দেশের বিপক্ষে একদিনের ক্রিকেটে এটি তার অষ্টম সর্বোচ্চ রান। সাইফউদ্দিন ১৫ বলে ২৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

সাইফউদ্দিনকে নিয়ে পাপন বলেন, ‘আসলে সাইফউদ্দিনকে আমরা মিস করছিলাম। এটা আমি আগেও কয়েকবার বলেছি, বিশেষ করে টি-টোয়েন্টিতে আমরা সবসময় মিস করি। লোয়ার অর্ডারে একজন অলরাউন্ডার যে দ্রুত কিছু রান এনে দিতে পারে। আজকে এতদিন পরে এসেও সে আমাদের কিছু সুন্দর রান উপহার দিয়েছে।’

ব্যাটিংয়ের মতো বোলিংয়েও দুর্দান্ত করেছেন সাইফউদ্দিন। সাত ওভার বোলিং করে মাত্র ২২ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন এই অলরাউন্ডার। এ ছাড়া দুটি করে উইকেট নেন মাশরাফি মোর্ত্তজা ও মেহেদী হাসান মিরাজ।