ছিনতাইকারী রিকশা চালককে খুঁজে পেলেন নারী যাত্রী, অতঃপর…

প্রকাশিত: ১০:৩৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥

নগরীতে রিক্সা চালক কর্তৃক নারী যাত্রীর মালামাল ছিনতাই’র ঘটনায় অভিযুক্ত চালককে আটক করেছে এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ। এসময় ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত একটি ব্যাটারী চালিত রিকশা জব্দ করেছে তারা। আটককৃত ছিনতাইকারী ছালাম হাওলাদার (৫০) নগরীর কাশীপুর বিল্ববাড়ী এলাকার বাসিন্দা মৃত আব্দুল খালেক হাওলাদারের ছেলে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উত্তর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. খাইরুল আলম এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ‘বরিশাল জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার উত্তর দেহেরগতি এলাকার বাসিন্দা লাইজু বেগম (৪২) গত ২৩ আগস্ট ভোরে লঞ্চ যোগে ঢাকা থেকে বরিশালে আসেন। পরে ইঞ্জিন চালিত যানে রহমতপুরে যান তিনি। সেখান থেকে মেয়ের বাড়ী যাওয়ার উদ্দেশে একটি ব্যাটারী চালিত রিকশা ভাড়া করেন। প্রায় ২০ মিনিট চলার পরে চালক কাশীপুর মহামায়ার পুল এর পশ্চিম পাশে লাদেন সড়কে একটি কালভার্টের উপর রিকশা থামিয়ে দেয়।
এক পর্যায় হত্যার ভয়-ভীতি দেখিয়ে লাইজু বেগম নামের ওই যাত্রীর গলা চেপে ধরেন স্বর্ণের কানের দুল ও সাথে থাকা মালামাল ছিনিয়ে নেয় রিকশা চালক। এসময় যাত্রী চিৎকার দিলে তাকে ধাক্কা দিয়ে আবর্জনার ড্রেনে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায় ওই ছিনতাইকারী।

এই ঘটনায় একই দিন দুপুরে লাইজু বেগম তার মেয়েকে নিয়ে রিকশা চালককে খুঁজতে বরিশালে আসেন। এমনকি কাকতালীয়ভাবে নগরীর বিবির পুকুর পাড় এলাকায় রিকশা চালককে পেয়েও যান তারা। তাৎক্ষণিক কোতয়ালী মডেল থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে ওই রিকশা চালককে আটক করে এয়ারপোর্ট থানায় হস্তান্তর করে। পরে এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ রিকশা চালক ছালাম হাওলাদারের বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে ছিনতাই হওয়া মালামাল উদ্ধার করে।

উপ-পুলিশ কমিশনার মো. খাইরুল আলম বলেন, ‘আটককৃত রিকশা চালক আব্দুস ছালাম হাওলাদারকে তার জব্দকৃত রিকশাসহ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Sharing is caring!