চাল আত্মসাতের মামলায় ডিলারকে আটক করেছে দুদক

প্রকাশিত: ৫:৩৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০

এমদাদুল হক, বগুড়া জেলা প্রতিনিধি ॥

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় মহামারি করোনা মোকাবেলায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির সরকারি ৭১০ কেজি চাল আত্মসাতের মামলায় ময়দানহাট্টা ইউনিয়নের আলোচিত চেয়ারম্যান এসএম রুপম’র বড় ভাই দাড়িদহ বাজারের ডিলার মোঃ মশিউর রহমান হিরনকে দুদক গ্রেফতার করেছে। বৃহস্পতিবার দুদকের বগুড়া জেলা সহকারী পরিচালক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম শহরের সেউজগাড়ী এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করেন। পরে তাকে বগুড়ার স্পেশাল জজ আদালতে সোপর্দ করা হলে স্পেশাল জজ নরেশ চন্দ্র সরকারি হাজতি পরোয়ানা মূলে তাকে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দেন।

জানা গেছে, গ্রেফতারকৃত ডিলার মোঃ মশিউর রহমান হিরন শিবগঞ্জ উপজেলার ময়দানহাট্টা ইউনিয়নের বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যান এসএম রুপমের বড় ভাই এবং মহাবালা গ্রামের মরহুম মতিউর রহমান (মতিয়ার) এর ছেলে। ডিলার মোঃ মশিউর রহমান খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৫৩৮ জন সুবিধাভোগীর মধ্যে ১৭ জন সুবিধাভোগীর নাম ২ বার আবার কোন কোন ক্ষেত্রে ৩ বার ব্যবহার করে এবং মজু; রেজিস্ট্রারে ১৪০ কেজি চাল হিসাবভুক্ত না করে কারচুপি, ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির মাধ্যমে ৬১ হাজার ৭৫১ টাকা ৪৯ পয়সা মূল্যের ৭১০ কেজি সরকারি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল আত্মসাত করেন। এ ঘটনায় গত ১২ এপ্রিল উপজেলা জুড়ে আলোচনা সমালোচনার ঝড় ওঠে। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়াসহ দৈনিক পত্রিকায় বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন অব্যাহত থাকে। মামলাও হয় তার বিরুদ্ধে। এরপর তিনি দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর বগুড়া সেউজগাড়ী থেকে গ্রেফতার হন।

এ ব্যাপারে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় বগুড়ার সহকারী পরিচালক মোঃ আমিনুর ইসলাম বাদী হয়ে গত ১২ এপ্রিল ওই আসামি মশিউর রহমানের বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের করেন। আসামি মশিউর রহমান দীর্ঘদিন পালাতক থাকার পর বৃহস্পতিবার তাকে বগুড়ার সেউজগাড়ী এলাকা থেকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়।