চরফ্যাশন সরকারি হাসপাতালে দালাল নির্মূল কমিটির অভিযানে আটক ৪

প্রকাশিত: ৭:২৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০২১

এম,নোমান চৌধুরী, চরফ্যাশন প্রতিনিধি ॥ ভোলা চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দালাল নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক ইয়াছিন আরাফাত’র নেতৃত্বে ঝটিকা অভিযান পরিচালিত হয়েছে। এসময় রোগীর ডাক্তারি ব্যবস্থা পত্রসহ আটক করা হয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৪ দালালকে। রবিবার (২৪ জানুয়ারি) বেলা ১২টার সময় উপজেলা দালাল নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক ও সেন্ট্রাল ইউনাইটেড হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের চেয়ারম্যান ইয়াছিন আরাফাত এর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানে বিভিন্ন ঔষধের দোকান ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ইউসুফ (৩৫), রিয়াদ (২৮), রোমান (২৫), সোহেল (২৩) নামের ৪ জন দালাল কে হাতেনাতে আটক করা হয়। পরে সাময়িক শাস্তি দিয়ে আর কোন দিন দালালি না করার অঙ্গিকারের মাধ্যমে ছেড়ে দেয়া হয় তাদের।

এসময় উপজেলা দালাল নির্মূল কমিটির আহ্বায়কের সাথে উপস্থিত ছিলেন, চরফ্যাশন উপজেলা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ শাজাহান মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মিলিটারি, সাংগঠনিক সম্পাদক তিতুমীর মিয়াজি, দালাল নির্মূল কমিটির সদস্য সচিব মিল্লাতে এলাহীসহ ৮ সদস্যের একটি টিম। জানা যায়, চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতর এবং বাহিরে দীর্ঘ দিন যাবত একটি চক্র সাধারণ রোগী বা অভিভাবক কে প্রথমে মায়ার জালে বন্দী করে নির্দিষ্ট ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং ঔষধের দোকান থেকে ঔষধ ক্রয় করতে বাধ্য করছে।

এতে কমিশনের মাধ্যমে দালাল চক্রটি হাতিয়ে নিচ্ছে বিপুল পরিমাণের অর্থ। সাধারণ রোগী ও জনগণের এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে চরফ্যাশনের স্বাস্থ্য খাতকে দালাল মুক্ত রাখতে এমন কমিটি গঠন এবং অভিযান পরিচালিত হয়েছে। ইতিপূর্বে উপজেলা প্রশাসন একাধিকবার অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতারের মাধ্যমে অর্থদ- আদায় করে ছেড়ে দিয়েছেন। তাতে কোন প্রকার সাফল্য আসেনি।

দালাল নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক ইয়াছিন আরাফাত বলেন, এসকল দালালের কারণে আজ আমরা সম্মান নিয়ে প্রকৃত পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে রোগীদের সেবা দিতে পারছি না। এখানে বেশিরভাগ দালাল ঔষধের দোকানের কিন্তু সাধারণ মানুষ গড়ে আমাদের কে খারাপ মনে করছে। মানসম্মানের কথা চিন্তা করে আমরা উপজেলা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিক সমিতির সিদ্ধান্তে এ উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। অভিযানে যে কোন প্রতিষ্ঠানের দালাল হাসপাতালে পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আমরা আপনাদের ও উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি। আশা করছি আমরা সফল হবো।

এদিকে এমন উদ্যোগ গ্রহণ করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দালাল নির্মূল কমিটি কে অভিনন্দন ও সাধুবাদ জানাচ্ছে চরফ্যাশন উপজেলার সকল স্তরের মানুষ। তারা আশাবাদী এ কমিটির মাধ্যমে দালাল মুক্ত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে।