গোপনে ভিডিও ধারণ কর‍ায় কথিত সম্পাদকসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: ৯:২৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার  ::

রাতের আঁধারে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নদীর তীরে বেড়াতে যাওয়া বিশিষ্টজনদের ছবি গোপনে ভিডিও ধারণের সময় হাতেনাতে আটক হয়েছেন দৈনিক বাংলার বনে পত্রিকার কথিত সম্পাদক মামুন অর রশীদ নোমানীসহ তিনজন। এই ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে কোতয়ালী মডেল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে কথিত এবং বিতর্কিত সাংবাদিক নোমানীসহ তিনজনকে রোববার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে গত শনিবার রাত ১টার দিকে নগরীর ত্রিশ গোডাউন এলাকায় বধ্যভ‚মি সংলগ্ন কীর্তনখোলা নদীর তীর থেকে তাদের আটক করে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ।

জেলে যাওয়া তিন অপরাধী হলেন- ‘দৈনিক বাংলার বনে’ পত্রিকা এবং অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘বরিশাল খবর’ এর কথিত সম্পাদক মামুনুর রশীদ নোমানী, ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের কথিত সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল মৃধা ও তাদের সহযোগী লাবু গাজী।
তথ্য নিশ্চিত করে কোতয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নুরুল ইসলাম বলেন, ‘শনিবার রাত ১টার দিকে সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ তার সহধর্মিণী ও সন্তানদের নিয়ে কীর্তনখোলা নদীর তীরবর্তী বধ্যভ‚মি এলাকায় বেড়াতে যান।

এসময় অভিযুক্তরা অনুমতি ব্যতীত অসৎ উদ্দেশ্যে গোপনে তাদের ভিডিও ধারণ করেন। মেয়র এবং তার পরিবার বিষয়টি টের পাওয়া মাত্রই অভিযুক্ত তিনজন দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এসময় পুলিশ তাদের ধাওয়া করে ধরে ফেলে।

ওসি বলেন, ‘এই ঘটনায় ঘটনাস্থলে উপস্থিত বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ সাইয়েদ আহমেদ মান্না বাদী হয়ে শনিবার রাতেই তিনজনকে আসামি করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রোববার তাদের তিনজনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। এসময় বিচারক অভিযুক্ত তিনজনকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন বলে জানিয়েছেন ওসি।

Sharing is caring!