গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনায় চিকিৎসক রবিনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ২:১৮ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার: ১১ বছর বয়সী গৃহকর্মীকে ছয় মাস ধরে নির্যাতনের ঘটনায় জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের (নিটোর) ট্রমা বি‌শেষজ্ঞ ডা. সিএইচ রবিনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নির্যাতনের শিকার শিশুটির চাচা তপন বাড়ৈ বাদী হয়ে বরিশালের উজিরপুর থানায় এ মামলা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে উজিরপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউল আহসান বলেন, মামলায় ডা. সিএইচ রবিন, তার স্ত্রী রাখি সাহা ও চেম্বারের সহযোগী বাসু হালদারকে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে ডা. সিএইচ রবিন বিভিন্ন লোকের মাধ্যমে নির্যাতনের শিকার শিশু নিপা বাড়ৈর পরিবারকে হুমকি দিচ্ছেন বলে জানা গেছে। এতে নিরাপত্তাহীনতায় আহত নিপাকে নিয়ে উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে পালিয়ে যান স্বজনরা। পরে শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ভোরে অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে।

ওসি জিয়াউল আহসান জানান, নির্যাতনের শিকার নিপার চাচা তপন বাড়ৈর শ্বশুর বিমলের বাড়ি আগৈলঝাড়া থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। নিপার চাচি মুক্তি বাড়ৈ জানিয়েছেন বিভিন্নজনের হুমকিতে তারা হাসপাতাল ছেড়ে পালিয়েছিলেন।

এদিকে তারা পালানোর পর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক শামসুদ্দোহা তৌহিদ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা কয়েকজন রোগীর স্বজন জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে নিপা বাড়ৈর চাচি মুক্তি বাড়ৈর মোবাইলে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা ফোন করে হুমকি দেন। এতে খুব ভোরে তারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়েছেন।

নির্যাতনের শিকার নিপা বাড়ৈ
উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক শামসুদ্দোহা তৌহিদ বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত চাচা পরিচয়ে এক ব্যক্তি নির্যাতনের শিকার শিশু নিপাকে হাসপাতাল থেকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। তবে শিশুটির শারীরিক অবস্থা ভালো না থাকায় এবং বিষয়টি স্পর্শকাতর হওয়ায় পুলিশকে না জানিয়ে তাকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ছাড়পত্র দিতে রাজি হয়নি। পরে ভোর ৫টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই শিশুটি এবং তার সঙ্গে থাকা বড় মা পরিচয় দেয়া নারীকে আর দেখা যায়নি। শেষে দুপুরে এ নিয়ে থানায় জিডি করা হয়।

প্রসঙ্গত, বরিশালের উজিরপুর উপজেলার হারতা ইউনিয়নের জামবাড়ি গ্রামের প্রতিবন্ধী ননী বাড়ৈর মেয়ে নিপা বাড়ৈ। ছয় মাস আগে তাকে রাজধানীর শের-ই-বাংলা নগরে অবস্থিত জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের (নিটোর) অর্থোপেডিক ও ট্রমা বি‌শেষজ্ঞ ডা. সিএইচ রবিনের বাসায় গৃহকর্মী হিসেবে নেওয়া হয়। সেখানে ডা. সিএইচ রবিনের স্ত্রী শিখা সাহা দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতনের পর শিশুটিকে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত ৩টার দিকে স্বামীর চেম্বারের সহযোগী বাসু হালদারের মাধ্যমে ফেলে রেখে যান। খবর পেয়ে পুলিশ নিপা বাড়ৈকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।