কাশীপুরে স্বামী ও দেবরের নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ শেবাচিমে

প্রকাশিত: ১০:১৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশালে নগরীর কাশীপুর এলাকায় যৌতুকের দাবিতে ফারজানা বেগম নামে এক গৃহবধূকে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে রক্তাক্ত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামী ও দেবরের বিরুদ্ধে। গত সোমবার রাত সাতটায় ইছাকাঠী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের শিকার ফারজানা ওই এলাকার ওবায়দুর রশিদ মনিরের স্ত্রী। বর্তমানে তিনি গুরুতর অবস্থায় বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। আহত ফারজানা জানান, গত সাত বছর পূর্বে ৩০ নং ওয়ার্ড কলাডেমা এলাকার মৃত কদম আলীর মেয়ে ফারজানা বেগমের সাথে কাশীপুর ইছাকাটি এলাকার আব্দুল আলীর ছেলে ওবায়দুর রহমানের পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।

বিয়ের এক বছরের মাথায় দাম্পত্য জীবনে তাদের একটি সন্তান আসে। এরপর থেকে মনির ও তার পরিবারের লোকজন স্ত্রী ফারজানার কাছে যৌতুক দাবি করে আসছেন।
যৌতুকের জন্য ফারজানার উপর অমানুষিক নির্যাতন চালাতেন স্বামী মনির। এছাড়া মনির একাধিক নারীর সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এসব বিষয় নিয়েও সংসারে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো।

 

ফারজানা সংসারের কথা চিন্তা করে স্বামী মনির কে একাধিকবার বোঝালেও যৌতুকের জন্য নির্যাতন থেকে মুক্তি পাচ্ছিলেন না স্ত্রী ফারজানা।
ঘটনার দিন সোমবার যৌতুক নিয়ে মনিরের সাথে ফারজানার দ্বন্দ্ব হয়। এরই জের ধরে রাত সাতটায় স্বামী মনির দেবর- হাসান, এহাসান এবং জা নার্গিস আক্তার পরিকল্পিতভাবে ফারজানাকে গাবের লাঠি দিয়ে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে রক্তাক্ত করেন।

স্থানীয় ও পরিবারের অন্যান্য লোকজন আহত অবস্থায় ফারজানাকে উদ্ধার করে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে আহতের স্বজনরা জানান।