কাঠালিয়া উপজেলা সদরে চোরের উপদ্রব বৃদ্ধি, জনমনে আতংক

প্রকাশিত: ৯:৫২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০২১

মোঃ খাইরুল আমিন ছগির, কাঠালিয়া প্রতিনিধি ॥ ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলা সদরে মোঃ মাহবুব সিকদারের ঘরে এক দুর্ধর্ষ চুরি সংগঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘরের তালা ভেঙে চোরচক্র নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘরে কেউ ছিলেন না। কাঠালিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ বিষয়ে মোঃ মাহবুব সিকদার জানান, রাত সাড়ে আটটায় বাজার থেকে বাড়ী ফিরে দেখতে পাই ঘরের তালা ভাঙা, বাড়ীর লোকজনকে ডাক দেই এবং ভিতরে প্রবেশ করে মালামাল তছনছ অবস্থায় দেখি।

 

স্থানীয়রা জানান, সম্প্রতি কাঠালিয়া উপজেলায় চোরের উপদ্রব বৃদ্ধি পেয়েছে, গত ৩১ ডিসেম্বর উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের প্রশিক্ষক সোনিয়া আক্তারের কাঠালিয়া বাসস্ট্যান্ডসস্থ ভাড়াটিয়া বাসায় দুপুরে তালা ভেঙে চোর ঢুকে নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকার ও মালামাল নিয়ে যায়। এ বিষয়ে কাঠালিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে।

 

অপরদিকে গত ১২ জানুয়ারি পার্শ্ববর্তী জয়খালী গ্রামের কৃষক কবিরের ৫টি গরু চুরি করে নিয়ে যায় চোরচক্র। এতে ওই কৃষকের প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়।

 

এ ঘটনায় কাঠালিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। দক্ষিণ আউরা গ্রামের ইস্রাফিল তালুকদারের ঘরে সন্ধ্যা রাতে তালা ভেঙে চোর ঢুকে মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। এর কিছু দিন পূর্বে থানা সংলগ্ন ইউনিয়ন পরিষদ রোডে কম্পিউটারের পুরানো যন্ত্রাংশ ক্রেতাকে ছুরি মেরে আহত করে ৭০ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের চেষ্টা চালানো হয়। উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ বদিউজ্জামান বদু সিকদার জানান, উপজেলা সদরে অল্প দিনের ব্যবধানে দুটি দুর্ধর্ষ চুরি সংগঠিত হয়, একটি দিনের বেলায়, অপরটি সন্ধ্যায়, এতে জনমনে আতংকের সৃষ্টি হচ্ছে।