কাঠালিয়ায় জমির গাছ কেটে সন্ত্রাসী বাহিনীর ঘর নির্মাণের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত: ৮:৫৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৮, ২০২০

খাইরুল আমিন ছগির, কাঠালিয়া প্রতিনিধি ::

ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলার উত্তর চেঁচরী গ্রামের মোঃ আবুল হোসেন খন্দকার ও মোঃ চাঁন মিয়ার পৈত্রিক সম্পত্তির গাছ কেটে সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে ঘর নির্মাণ করেছেন একই গ্রামের মোঃ বাবুল খন্দকার ও তার দলবল। অসহায় আবুলকে ঘর নির্মাণের সময় সন্ত্রাসীরা প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যায়। বুধবার সকাল ১১টায় কাঠালিয়া প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে আবুল হোসেন খন্দকার লিখিত বক্তব্যে এ কথা জানান।

 

তিনি তার বক্তব্য বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ জমি-জমা নিয়ে বাবুল খন্দকার এবং হাদিস খন্দকারের সাথে বিরোধ চলে আসছে। আমাদের ওয়ারিশ সূত্রে পাওয়া জমি তারা অন্যায় ভাবে ভোগ দখল করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। গত ১৭ নভেম্বর (২০২০) মঙ্গলবার মোঃ বাবুল খন্দকার ও মোঃ হাদিছ খন্দকার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী জহিরুল, রুবেল ও ইয়াকুব বাহিনী দিয়ে আমাদের ভোগ দখলকৃত জমির গাছ কেটে ঘর উত্তোলন করে।

 

এ সময় সন্ত্রাসী আমাদের প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষকে স্ব স্ব জায়গায় অবস্থান করার নির্দেশ দেয়। ২০১৭ সালের ২১ নভেম্বর চেঁচরীরামপুর ইউনিয়ন পরিষদ গ্রাম্য আদালত সালিস ব্যবস্থার মাধ্যমে রোয়েদাদ প্রদান করেন। তাতে বাবুল খন্দকার এবং হাদিস খন্দকারের স্বাক্ষর রয়েছে, অথচ তিন বছরের মধ্যে তারা সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে ঘর নির্মাণ করেছে।

 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ভুক্তভোগীর বড় ভাই আমির হোসেন ও মামা চাঁন মিয়া।

কাঠালিয়া থানার এস আই আমিনুল ইসলাম জানান “আবুল হোসেনের অভিযোগটি আমি মামলা আকারে কোর্টে প্রেরণ করব। বাবুল খন্দকার এবং হাদিস খন্দকার কোনো সালিস মীমাংসা মানছেন না”।

Sharing is caring!