কাঁচা মরিচের ডাবল হ্যাট্রিক ॥ বাড়ছে ডিম ও গো-মাংসের দামও

প্রকাশিত: ১১:৩১ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০

মো. জিয়াউদ্দিন বাবু ॥

মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে ডাবল হ্যাট্রিক করেছে কাঁচা মরিচের দাম। বর্তমানে প্রতি কেজি মরিচ বিক্রি হচ্ছে দুই শত টাকায়। সেই সাথে বেড়েছে ডিমের দামও। তবে সবজির দাম কমলেও অপরিবর্তিত রয়েছে মাছ ও মাংসের দাম। শুক্রবার নগরীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এই তথ্য জানা গেছে।

ব্যবসায়ীদের সাথে আলাপ করে জানাগেছে, উত্তরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। ফলে দক্ষিণাঞ্চলে সবজির দামও কমে এসেছে। তবে ডিম ও মরিচের দাম বেড়ে গেছে। শুক্রবার প্রতিহালি ডিম ৩৮ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে। যা গত সপ্তাহে ৩৫ টাকায় বিক্রি হয়। তাছাড়া প্রতি কেজি মরিচ দুই শত টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। যা সপ্তাহের ব্যবধানে কয়েকগুণ বেড়েছে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের।

অপরদিকে ব্রয়লার মুরগী ১৫০ টাকা, সোনালী ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। লেয়ার বিক্রি হচ্ছে ২২০ টাকা করে। আর গরুর মাংস প্রতি কেজি ৫৮০ থেকে ৬শত এবং খাসি ৭৫০ থেকে ৮শত টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

অপরদিকে রুই, কাতল প্রতি কেজি ৩০০-৫০০ টাকা, চিংড়ি প্রকার ভেদে ৫০০-৬০০ টাকা, এক কেজি ওজনের ইলিশ ১২শ থেকে ১৪শ টাকা, ছোট সাইজের ইলিশ প্রতি কেজি সাড়ে ৪শত থেকে ৬শত টাকা, পাবদা ৩শত টাকা, তেলাপিয়া প্রকার ভেদে ১০০ থেকে ১৩০ টাকা, পাঙ্গাস ১২০ টাকা, মোচন মাছ ১৫০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, সপ্তাহের ব্যবধানে মাছের মূল্য সামান্য কিছু বেড়েছে।

অপরদিকে ক্রেতাদের অভিযোগ, কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে এক শ্রেণির ব্যবসায়ী মাংসের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা করছে। এরই মধ্যে বাজারে গরুর সংকট সৃষ্টি করে তারা গরুর মাংসের মূল্য কিছুটা বাড়িয়ে নিতে শুরু করেছে।

অপরদিকে বেড়েছে করলা, ঢেরস, ঝিঙার দাম। এসব সবজি প্রতি কেজি ৪০ টাকা দরে বিক্রি করা হচ্ছে। পোটল ২০ টাকা, কাঁচা কলা ২০ টাকা, শসা ২০ টাকা, পুঁই শাক ৩০, পেঁপে ৩০ ও মিষ্টি কুমড়া ২৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। ব্যবসায়ীদের দাবি, এসব সবজির মূল্য গত সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহে কমে এসেছে।

Sharing is caring!