কলাপাড়ায় ১১ দরিদ্র পরিবারের চাল চৌকিদারের পেটে

প্রকাশিত: ১:০৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৩, ২০২০

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, পটুয়াখালী, ২৩ এপ্রিল ॥ এবার ১১ দরিদ্র অসহায় দরিদ্র পরিবারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল তুলে খেয়েছে ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ (চৌকিদার) আবু সালেহ। দীর্ঘ কয়েক মাস এসব ফেয়ার প্রাইস কার্ডের চাল তুলে আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার বিষয়টি কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আসলে তিনি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন। জানা গেছে, একজনের কার্ডের ওপরে অন্যের ছবি লাগিয়ে চৌকিদার এসব চাল তুলে নিয়েছে। ভুক্তভোগী আমির হোসেন জানান, তার কার্ড দিয়ে তিনি একবার চাল তুলেছেন। এরপর পরিষদের কথা বলে কার্ডটি নিয়ে যায় চৌকিদার। আরেক ভুক্তভোগী খবির উদ্দিন জানান, তাকে একটি কার্ড দেয়ার কথা বলে চৌকিদার পাঁচ শ’ টাকা নিয়েছে। খবিরের ছবি দিয়ে একটি কার্ডে বসিয়ে একবার চাল তোলা হয়েছে। নুরভানু জানান, তার কার্ডটিও চৌকিদার আবু সালেহ নিয়ে গেছে। ইউপি মেম্বার মিজবা খান জানান, এসব ভুক্তভোগী অভিযোগ দিলে চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনা করে ডিলারের কাছ থেকে কার্ড নিয়ে দেখি এই অবস্থা। ডিলার ওমর ফারুক জানান, তিনি কার্ড হাতে পেয়ে চাল দেন। তবে তার কাছে কার্ড থাকে কেন এর উত্তর মেলেনি। তদারকি কর্মকর্তা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা লিটন চন্দ্র রায় জানান, তার কাছে কেউ কখনও অভিযোগ দেয়নি। চৌকিদারের এমন অপকর্মের কথা স্বীকার করে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম সিকদার জানান, ওই চৌকিদার বেপরোয়া এবং মাদকসেবী। আইনি ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তুতির কথা জানালেন তিনি। ইউএনও আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক জানান, চৌকিদারের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।