কলাপাড়ায় সেতুর স্লোপের নিচের ফুটপাথ দখল করে অর্ধশত স্থাপনা

প্রকাশিত: ৭:৪৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩০, ২০২১

মেজবাহউদ্দিন মাননু, কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥ কলাপাড়ায় শেখ রাসেল ও শেখ জামাল সেতুর পূর্বপাশের স্লোপের নিচের ফুটপাথ পানি নিষ্কাশনের ড্রেনসহ দখল করে অন্তত অর্ধশত স্থাপনা তোলা হয়েছে। চার খুঁটির ওপরে তোলা এই স্থাপনার কারণে এখন পথচারী চলাচলে সমস্যা হয়। সমস্যা হয় যানবাহন চলাচলে। দখল হয়ে যাচ্ছে সড়ক ও জনপদের এই জায়গা। একটি প্রভাবশালী মহল এসব দোকানপাট তুলে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। দোকান প্রতি কমপক্ষে দশ হাজার টাকা করে হাতিয়ে নেয় ওই চক্রটি। ফলে ক্ষুদে এসব দোকানিরা দোকান তোলা থেকে শুরু করে চাঁদাসহ লাখ টাকা লগ্নি করেছেন।

 

ব্যবসা করতে সরকারের খাস জমির একসনা চান্দিনা ভিটির ডিসিআর প্রকৃত দোকানিরা না পাওয়ায় বাধ্য হয়ে এসব ক্ষুদে দোকানি মধ্যস্বত্বভোগীদের মাধ্যমে সড়ক ও জনপথের এই ফুটপাথসহ সেতুর স্লোপের নিচের দিকে দোকানঘর তুলেছেন। একারণে একদিকে সেতুর সৌন্দর্যহানি অপরদিকে সেতুর পাশের সড়কে যান চলাচলসহ পথচারীদের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। মহিপুর বন্দরে শেখ রাসেল সেতুর পূর্বদিকে এবং শেখ জামাল সেতুর পুরান মহিপুর অংশের পূর্ব পাশে এইসব স্থাপনা তোলা হয়েছে।

 

সড়ক ও জনপদ বিভাগের অধিগ্রহণকৃত সড়কের পাশ দখলদারমুক্ত করার দাবি করেছেন স্থানীয়রা। এছাড়া কলাপাড়ায় শেখ কামাল সেতুর কলাপাড়া অংশের সওজের অধিগ্রহণ করা মূলসড়কসহ সেতুর নিচে অসংখ্য ঝুঁকিপূর্ণ স্থাপনা তোলা হয়েছে। তবে এসব অপসারণের লক্ষ্যে স্থাপনায় রেডমার্ক করা হয়েছে। সড়ক ও জনপদ বিভাগ পটুয়াখালীর নির্বাহী প্রকৌশলী মীর মোহাম্মদ কামরুল হাসান জানান, এসব স্থাপনা শীঘ্রই অপসারণ করা হবে। ইতোমধ্যে তালিকা তৈরি করে মার্কিং করে জেলা প্রশাসনের সহায়তা চাওয়া হয়েছে। সেতু এবং সওজের সকল জায়গা দখলদারমুক্ত করা হবে।