কলাপাড়ায় জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী জজ আদালত ভবনে দুর্ধর্ষ চুরি :

প্রকাশিত: ১:৩৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৩, ২০২০

৮০ হাজার টাকা লুট
মেজবাহউদ্দিন মাননু, কলাপাড়া প্রতিনিধি ॥ কলাপাড়ায় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী জজ আদালতের ভাড়া ভবনে দুর্ধর্ষ চুরি হয়েছে। চোররা ভবনের তিনটি ফ্লোরে অবস্থিত কোর্টের সকল আলমীরা, ফাইল কেবিনেটের তালা ভেঙে কাগজপত্র মালামাল এলোমেলো করেছে। নথিপত্র এলোমেলো করে রাখে। আইনজীবী কল্যাণ সমিতির কক্ষের আলমীরার তালা ভেঙে ৩০ হাজার টাকা নিয়েছে।

এছাড়া দুটি কোর্টের বিভিন্ন আলমীরা থেকে আরও প্রায় ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। দু’টি আদালতের সকল কক্ষের তালা ভেঙে ভেতরের কাগজপত্র তছনছ করেছে। রোববার রাতে এ চুরি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কলাপাড়া পৌরসভার মাঝখানে এতিমখানাস্থ চৌরাস্তায় পৌরসভার পুরনো ভবনে ৭ জুলাই আদালত দু’টি স্থানান্তর করা হয়।

১২ জুলাই, ছিল আদালতের এ ভবনের প্রথম কর্মদিবস। তবে নথিপত্রসহ আর কোন মালামাল চুরি হয়েছে কি না তা এই মুহূর্তে কেউ নিশ্চিত কর জানাতে পারেন নি। সহকারী জজ আদালতের বেঞ্চ সহকারী মোঃ ইলিয়াস জানান, তাঁর কোর্টের তিনতলার কাঠের ও স্টিলের পাঁচটি আলমীরার তালা ভেঙে কাগজপত্রসহ মালামাল তছনছ করা হয়েছে। দু’টি আদালতের এমন কোন আলমীরা নেই যার তালা ভাঙা হয়নি। তবে চোরের দল মূল গেটের তালা না ভেঙে সানসেডের উপরের যেখানটায় গ্লাস ভাঙা ছিল সেখান থেকে ভবনে প্রবেশ করেছে বলে কলাপাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আশাদুর রহমান জানান।

এ ঘটনায় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের স্টেনো-টাইপিস্ট আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামি উল্লেখ করে কলাপাড়া থানায় একটি মামলা করেছেন। পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, চুরির সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। শহরের প্রাণকেন্দ্রে আদালতের ভাড়া ভবনে চুরির ঘটনায় শহরজুড়ে আলোচনা ও আতঙ্ক চলছে সাধারণ মানুষের মনে। পুলিশের নির্দিষ্ট টহলটিম থাকার পরও কোর্টের এই চুরির ঘটনায় শহরের মানুষ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে।

অতিসম্প্রতি কলাপাড়া পৌরশহরে অ্যাডভোকেট নাসির মাহমুদের বাসায় দিনের বেলা চুরি হয়েছে। রহমতপুরে এক বাড়িতে রাতের বেলা চুরি হয়েছে। এরপরে কোর্ট ভবনের চুরিতে মানুষ আতঙ্কিত রয়েছেন।