করোনা পরীক্ষার ফি আরোপ সরকারের দেউলিয়াত্বের বহিঃপ্রকাশ- বাসদ

প্রকাশিত: ৫:৪০ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ॥ করোনা টেস্টে ‘ফি’ আরোপ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেউলিয়াত্বের বহিঃপ্রকাশ বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ সমাজ তান্ত্রিক দল বাসদ বরিশাল জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ। একই সাথে অবিলম্বে করোনা পরীক্ষার আরোপিত ফি প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন তারা।

গতকাল মঙ্গলবার করোনা টেস্টের ফি প্রত্যাহার ও চিকিৎসা এবং টেস্টে সরকারি বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবিতে বাসদ আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে এ দাবি জানান দলটির নেতৃবৃন্দ।

সকাল সাড়ে ১১টায় নগরী অশ্বিনী কুমার হলের সামনে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশ সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল বাসদ বরিশাল জেলা শাখার আহ্বায়ক ইমরান হাবিব রুমন। বক্তব্য রাখেন বাসদ বরিশাল জেলা শাখার সদস্য সচিব ডা. মনীষা চক্রবর্তী।

এসময় মনীষা বলেন, করোনার এই মহামারি সংকটের সময় সরকার দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দিয়ে সাধারণ মানুষের গলা কাটছে। লুটপাটের স্বর্গরাজ্য কায়েম করছে আওয়ামীলীগ সরকার। দুর্নীতিতে নিমজ্জিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তারা দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। বাংলাদেশের মানুষ যাতে করোনা টেস্ট না করাতে পারে তার সব ব্যবস্থা সরকার করছে। সরকার মনে করছে যদি টেস্টের জন্য ফি নির্ধারণ করে দেওয়া হয় তবে মানুষ আর টেস্ট করাতে যাবে না। আর বাংলাদেশে করোনা পরীক্ষাও কমে আসবে। এই ফি আরোপ করার মানেই হচ্ছে ‘নো টেস্ট নো করোনা’।

সভাপতির বক্তব্যে বাসদ জেলা কমিটির আহ্বায়ক ইমরান হাবিব রুমন বলেন, সরকার করোনা পরীক্ষার জন্য ২০০ থেকে ৫০০ টাকা ফি নির্ধারণ করেছে। এর মাধ্যমে সরকার বুঝিয়ে দিয়েছে তারা মানুষের জন্য চিন্তা করেনা। তারা স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতির লাগাম টেনে ধরতে না পেরে মানুষের পকেট কাটছে। আমরা এই ফি বাতিলের দাবি জানাই। অন্যথায় আরো দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন বাসদ মার্কসবাদী আহবায়ক সাইদুর রহমান, ছাত্র ফ্রন্টের মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সুজন সিকদার, সাবেক সভাপতি সন্তু মিত্র, শ্রমিক ফ্রন্টের সাংগঠনিক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, শ্রমিক নেতা নুরুল হক প্রমুখ।

এর আগে নগরীর ফকির বাড়ি রোডে বাসদ জেলা কার্যালয় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন দলটির নেতা-কর্মীরা। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে অশ্বিনী কুমার হলের সামনে এসে শেষ হয়। পরে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন তারা।