কমিয়ে ধরা হলো চামড়ার দাম

প্রকাশিত: ৬:৩৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২০

বার্তা ডেস্ক ॥ চামড়ার দাম ঠিক করল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এ বছর পবিত্র ঈদুল আজহার জন্য নির্ধারিত এ দর গত বছরের চেয়ে বেশ কম। এ বছর ঢাকার জন্য লবণযুক্ত কাঁচা চামড়ার দাম গরুর প্রতি বর্গফুট ৩৫-৪০ টাকা এবং ঢাকার বাইরে ২৮-৩২ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। যা গত বছর ঢাকায় ছিল ৪৫–৫০ টাকা। আর ঢাকার বাইরে ছিল ৩৫–৪০ টাকা।

অন্যদিকে খাসির চামড়া সারা দেশে প্রতি বর্গফুট ১৩-১৫ টাকা ও বকরির চামড়া ১০-১২ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছর খাসির চামড়া ১৮–২০ টাকা ও বকরির চামড়া ১৩–১৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। আজ রোববার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এক বৈঠকে এ দাম নির্ধারণ করে।
মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে কাঁচা চামড়ার মূল্য ও সামগ্রিক প্রেক্ষাপট বিবেচনা করে সংশ্লিষ্ট বাণিজ্য সংগঠন, ট্যানারি অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে আলাপ করে এ মূল্য নির্ধারণ করা হয়। ট্যানারি মালিকেরা নির্ধারিত দামে কাঁচা চামড়া কেনার ঘোষণা দিয়েছেন।
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, চামড়ার নির্ধারিত মূল্য নিশ্চিত করতে যথাযথ প্রক্রিয়ায় চামড়া সংগ্রহ ও যথাসময়ে লবণ লাগানো নিশ্চিত করতে হবে।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ঈদের দিন থেকে দেশব্যাপী কঠোরভাবে বিষয়গুলো মনিটরিং করবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের গঠিত মনিটরিং টিম। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। প্রয়োজনে এবার কাঁচা চামড়া ও ওয়েট ব্লু চামড়া রপ্তানি করা হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এ বছর চামড়া যাতে নষ্ট না হয় এবং নির্ধারিত মূল্য নিশ্চিত করতে সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে। চামড়া সংগ্রহের পাঁচ-ছয় ঘণ্টার মধ্যে প্রয়োজনীয় লবণ মেশাতে হবে। দেশে পর্যাপ্ত লবণ রয়েছে, সরবরাহের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। চামড়া সংগ্রহ, সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াজাতকরণ, নির্ধারিত মূল্যে বেচাকেনাসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা তদারকির জন্য সব বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর জেলা পর্যায়ে মনিটরিং করবে।