ওয়ানডে দিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি!

প্রকাশিত: ১২:০৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২২, ২০২০

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খুব বেশি দূরে নেই। চলতি বছরের অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় বসবে এই বিশ্ব আসর। ছোট ফরমেটের ক্রিকেটে তাই আপাতত বেশি মনোযোগ দলগুলোর। তবে ভারত ভাবছে অন্যরকম।

ভারতীয় দলের কোচ রবি শাস্ত্রী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতির জন্য বেছে নিচ্ছেন ওয়ানডে সিরিজকে। সামনে নিউজিল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৩টি করে মোট ৬টি ওয়ানডে খেলবে ভারত। রবি শাস্ত্রী জানালেন, চলতি বছরের এই ওয়ানডেগুলোকেও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য দলকে প্রস্তুত করার ক্ষেত্র বানাতে চান তারা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসরেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত। তবে ২০০৭ সালের ওই আসরের পর আর শিরোপা ছুঁয়ে দেখা হয়নি দলটির। বিশ্বকাপটা ভারতীয় দলের জন্য একটা ‘ঘোর’ হয়ে আছে।

রবি শাস্ত্রী মনে করেন, সেই ঘোর থেকে বেরিয়ে আসতে হবে কোনো মূল্যে। তার কথায়, ‘আমরা চাই টসে হার জিতের বিষয়টি যেন আমাদের খেলার সমীকরণ থেকে চলে যায়। আমরা পরিবেশ পরিস্থিতিকে মানিয়ে নিয়েই নিজেদের শ্রেষ্ঠ খেলাটা খেলতে চাই। আমরা বিশ্বের সব দেশে সফল হতে চাই। এটাই আমাদের আসল লক্ষ্য এবং এই লক্ষ্য পূরণ করতেই আমরা এগিয়ে চলেছি। আর হ্যাঁ, বিশ্বকাপ জেতা আমাদের দলের জন্যে একটি ঘোরের মতো হয়ে আছে এবং এই লক্ষ্য আমরা যেভাবেই হোক পূরণ করব।’

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে আসন্ন সিরিজে ৫টি টি-টোয়েন্টি, ৩টি ওয়ানডে আর দুটি টেস্ট খেলবে ভারত। সফরটি শুরু হবে ২৪ জানুয়ারি প্রথম টি-টোয়েন্টি দিয়ে।

এরপর মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলবে ভারত। রবি শাস্ত্রী চাইছেন, ভারতকে একটি দল হিসেবে দাঁড় করাতে। সবাই যেন নিজের কথা না ভেবে দলের জন্যই বেশি ভাবে।

ভারতীয় কোচের ভাষায়, ‘’আমি’ শব্দটি আমাদের অভিধানে নেই। এটা হলো ‘আমরা’। আমাদের দলটা এভাবেই ভাবে। আমরা একে অপরের অর্জনকে উদযাপন করি, কেননা এটাই আমাদের দলকে জেতায়।’

তাই ওয়ানডে ফরমেটটা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে কাজে লাগানো সম্ভব বলে মনে করেন রবি শাস্ত্রী। তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি বিশ্বাস করি এটা খুবই সম্ভব।’

Sharing is caring!