এলজিইডির বাউফল উপজেলা প্রকৌশলী বরখাস্ত

প্রকাশিত: ৫:৪০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৭, ২০২০

বার্তা ডেস্ক ॥
অনিয়মের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এলজিইডির বাউফল উপজেলা প্রকৌশলী সুলতান হোসেনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বাউফল উপজেলা প্রকৌশলী সুলতান হোসেন মির্জাগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত অবস্থায় কিসমত শ্রীনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মাণকাজ স্পেসিফিকেশন মোতাবেক বাস্তবায়ন করেননি।

ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বিদ্যালয়টি পরিদর্শন করে নির্মাণকাজে ব্যাপক অনিয়মের প্রমাণ পান। ওই ভবনটি ত্রুটিপূর্ণভাবে নির্মাণ করা সত্ত্বেও উপজেলা প্রকৌশলী সুলতান হোসেন ঠিকাদারের সঙ্গে পরস্পর যোগসাজশে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে চূড়ান্ত বিল পরিশোধ করেছেন। তিনি ঠিকাদারের সঙ্গে যোগসাজশের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাত করেছেন। এতে এলজিইডি তথা সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সরকারের অর্থের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত না হওয়ায় সুলতান হোসেনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। গত ৩০ আগস্ট স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে প্রকৌশলী সুলতান হোসেনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

এদিকে সুলতান হোসেন বরখাস্ত হওয়ার খবরে বাউফলে ঠিকাদারদের মধ্যে নানা প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন ঠিকাদার বলেন, তিনি বাউফলে যোগদান করার পর প্রতিটি উন্নয়ন প্রকল্প থেকে গড়ে ৭ পার্সেন্ট উৎকোচ আদায় করেছেন। অবশ্য অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করে প্রকৌশলী সুলতান হোসেন বলেন, আমি কোন অন্যায় করিনি।

Sharing is caring!