একসঙ্গে তিন কন্যার জন্ম, অসহায় গৃহবধূর পাশে বরগুনার জেলা প্রশাসক


Deprecated: get_the_author_ID is deprecated since version 2.8.0! Use get_the_author_meta('ID') instead. in /home/ajkerbarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 4861
প্রকাশিত: ৭:২৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০২০

তরিকুল ইসলাম রতন, বরগুনা প্রতিনিধি ॥

বরগুনায় এক সঙ্গে তিন কন্যা জন্ম দেওয়ায় এক অসহায় গৃহবধূর পাশে দাঁড়ালেন জেলার সুযোগ্য প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ।

জানা যায় বরগুনা সদর উপজেলার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের ছোট গৌরীচন্না গ্রামের দিনমজুর সোহেলের স্ত্রী সুমনা এক সঙ্গে তিন কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। কিন্তু স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের কাছ থেকে পাননি কোন আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা। সরকারি সহায়তা পাওয়ার জন্যে স্থানীয় নেতাসহ চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে কোন উৎকোচ দিতে না পারায় তার ভাগ্যে জোটেনি সরকারী মাতৃত্বকালীন ভাতা।

সোমবার দুপুর ১২ টায় জন্ম দেওয়া সেই তিন কন্যা সন্তানের জননীকে আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন বরগুনার জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ।
গত ২৪ আগস্টে জানা যায়, ১১ মাস আগে দীনমজুর সোহেলের স্ত্রী সুমনার গর্ভে তিন কন্যা সন্তান জম্ম নেয়। এরা হল সাবিহা, তোহা ও তুশা।
ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়াকে টাকা দিতে না পারায় সুমনা মাতৃত্বকালীন ভাতা পাননি।

সুমানার স্বামী সোহেল ঢাকায় সামান্য বেতনে দিন মজুরের কাজ করতেন। করোনায় সে কাজও এখন নেই। বর্তমানে এই পরিবারটি তিনটি শিশু সন্তান নিয়ে অসহায় ও নানা কষ্টে জীবন যাপন করছেন।

তাই বরগুনা জেলা প্রশাসক তাদের বিষয়টি আমলে নিয়ে সোমবার দুপুরে তার কার্যালয়ে তিন কন্যা সন্তানসহ সুমনাকে ডাকেন। এ সময় জেলা প্রশাসক সুমনাকে পাঁচ হাজার টাকা, সন্তানদের জামা কাপড়, সুমনাকে শাড়ি ও ৫০ কেজি চাল উপহার স্বরূপ হিসেবে তাকে দিয়েছেন।

এবিষয়ে বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, আমি যা দিয়েছি তা প্রধান মন্ত্রীর দেওয়া উপহার। প্রধান মন্ত্রী বলেছেন একজন মানুষও না খেয়ে থাকবেন না। আমি জেনেছি সুমনা তিনটি শিশু নিয়ে মানবতার জীবন যাপন করছেন। তাই তাকে এ সহায়তা করা হয়েছে এবং তাকে আরও সহায়তা করা হবে বলেও তিনি জানান।